আজকের পত্রিকাআপনি দেখছেন ২১-০৯-২০১৮ তারিখে পত্রিকা

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাকশালেরই প্রেতাত্মা : বিএনপি

নিজস্ব প্রতিবেদক
| প্রথম পাতা

জাতীয় সংসদে পাস হওয়া ‘ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন’কে বাকশালের প্রেতাত্মা আখ্যা দিয়েছে বিএনপি। বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে দলটির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী এ মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের মানুষের মুখ বন্ধ করতে ও গণমাধ্যমের হাত-পা বেঁধে ফেলতে বুধবার ভোটারবিহীন সংসদে বিতর্কিত ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন পাস হলো। এটি সংবিধানবিরোধী একটি আইন। কারণ এটি সংবিধানের মূল চেতনা, বিশেষ করে মুক্ত চিন্তা, বাক স্বাধীনতা, মত প্রকাশের স্বাধীনতা ও গণমাধ্যমের স্বাধীনতাসহ মৌলিক অধিকার ক্ষুণœ করেছে। এ কালো আইন বাকশালেরই প্রেতাত্মা। আমি এ কালাকানুনের বিরুদ্ধে দেশবাসীসহ সব গণমাধ্যমের কর্মী ও মুক্তচিন্তার মানুষকে রুখে দাঁড়ানোর আহ্বান জানাচ্ছি।

রিজভী বলেন, গণমাধ্যমসহ যে কোনো মাধ্যমেই যাতে দুর্নীতির কোনো খবর প্রকাশিত না হয় সেজন্য এ ন্যক্কারজনক কালো আইন 

তৈরি করা হয়েছে। এ আইনের কারণে দেশের মানুষের নিরাপত্তা হুমকির মুখে পড়ল। কারণ আইনশৃঙ্খলা বাহিনী এখন বিনা ওয়ারেন্টে সংবাদপত্র ও সাংবাদিকদের অফিস ঢুকে তল্লাশির নামে তা-ব চালাতে পারবে, কম্পিউটারসহ সবকিছু সিজ করতে পারবে, যে কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারবে। সাধারণ মানুষও এ কালো আইনের থাবা থেকে রেহাই পাবে না।
বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি হাবিব-উন-নবী খান সোহেলকে পাঁচ দিনের রিমান্ডে নেওয়া, প্রচার সম্পাদক শহীদউদ্দিন চৌধুরী এ্যানীর বাসায় ‘সন্ত্রাসী হামলা’ ও স্বেচ্ছাসেবক দলের সাংগঠনিক সম্পাদক ইয়াসিন আলীর বাসভবনে পুলিশি তল্লাশির ঘটনার নিন্দা জানান রিজভী।
নাটোর স্বেচ্ছাসেবক দলের সাংগঠনিক সম্পাদক ফয়সাল আলম আবুল ও জেলা ছাত্রদলের সভাপতি কামরুল ইসলামসহ সাতজনকে সাদা পোশাকে তুলে নেওয়ার ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে অবিলম্বে তাদের জনসমক্ষে হাজির করারও দাবি জানান তিনি।
কয়েকটি গণমাধ্যমে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দলের চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকা প্রকাশের সংবাদকে ‘বানোয়াট ও আজগুবি’ বলে অভিহিত করে এ ধরনের সংবাদ প্রচার থেকে বিরত থাকার অনুরোধ জানান রিজভী। সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য আবুল খায়ের ভূঁইয়া, অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকার, কেন্দ্রীয় নেতা হাবিবুল ইসলাম হাবিব, আবদুস সালাম আজাদ, তাইফুল ইসলাম টিপু ও মুনির হোসেন উপস্থিত ছিলেন।