আজকের পত্রিকাআপনি দেখছেন ২৩-০৯-২০১৮ তারিখে পত্রিকা

ডিএসইতে পিই রেশিও কমেছে

নিজস্ব প্রতিবেদক
| অর্থ-বাণিজ্য

গেল সপ্তাহে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সার্বিক মূল্য আয় অনুপাত (পিই রেশিও) কমেছে। আগের সপ্তাহের থেকে পিই রেশিও কমেছে দশমিক ২২ পয়েন্ট বা ১ দশমিক ৪৩ শতাংশ। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। ডিএসইর তথ্য অনুযায়ী, আলোচ্য সপ্তাহে ডিএসইতে পিই রেশিও অবস্থান করছে ১৫ দশমিক ২০ পয়েন্টে। এর আগের সপ্তাহে ডিএসইর পিই রেশিও ছিল ১৫ দশমিক ৪২ পয়েন্ট।
সপ্তাহ শেষে খাতভিত্তিক পিই রেশিও বিশ্লেষণে দেখা যায়, ব্যাংক খাতের পিই রেশিও অবস্থান করছে ৮.৯ পয়েন্টে, সিমেন্ট খাতের ৪২.৪, সিরামিক খাতের ২৬ দশমিক ৩, প্রকৌশল খাতের ২০ দশমিক ৪, খাদ্য ও আনুষঙ্গিক খাতের ২৪ দশমিক ১, জ্বালানি ও বিদ্যুৎ খাতের ১৫ দশমিক ৪, সাধারণ বিমা খাতের  ১১ দশমিক ৩, তথ্য ও প্রযুক্তি খাতের ২১ দশমিক ৮ পয়েন্টে। 
এছাড়া পাট খাতের পিই রেশিও মাইনাস ২৯ দশমিক ৪ পয়েন্টে, বিবিধ খাতের ১৭ দশমিক ৮, এনবিএফআই খাতের ১৭ পয়েন্টে, কাগজ খাতের ১৬১ দশমিক ৬, ওষুধ ও রসায়ন খাতের ১৮ দশমিক ৩, সেবা ও আবাসন খাতের ৩১ দশমিক ৪, চামড়া খাতের ১৮ দশমিক ১, টেলিযোগাযোগ খাতের ১৪ দশমিক ৪, বস্ত্র খাতের ২৩ দশমিক ৮ এবং ভ্রমণ ও অবকাশ খাতের মাইনাস ২১ দশমিক ৮ পয়েন্টে অবস্থান করছে।
লেনদেনের শীর্ষে খুলনা পাওয়ার : বিদায়ী সপ্তাহে ডিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে রয়েছে খুলনা পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড, কোম্পানিটির ৭ দশমিক ২১  শতাংশ দর বেড়েছে। আলোচ্য সপ্তাহে কোম্পানিটির ৩ কোটি ১৫ লাখ ৬৭ হাজার ৪৩৫টি শেয়ার লেনদেন হয়েছে, যার বাজার মূল্য ৪০৪ কোটি ২৩ লাখ টাকা। তালিকার দ্বিতীয় স্থানে থাকা অ্যাক্টিভ ফাইন কেমিক্যালসের ৫ কোটি ৪ লাখ শেয়ার লেনদেন হয়েছে, যার বাজার মূল্য ২২৭ কোটি ৭০ লাখ টাকা। ১ কোটি ১৮ লাখ শেয়ার লেনদেন করে তৃতীয় স্থানে রয়েছে ইফাদ অটোস লিমিটেড। লেনদেনের তালিকায় থাকা অন্য কোম্পানিগুলো হচ্ছে বিবিএস ক্যাবলস, শাশা ডেনিমস, আমান ফিড, ন্যাশনাল হাউজিং ফিন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট, সিঙ্গার বাংলাদেশ, ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি ও সায়হাম টেক্সটাইল মিলস লিমিটেড।