আজকের পত্রিকাআপনি দেখছেন ২৫-০৯-২০১৮ তারিখে পত্রিকা

কর্মশালায় মোহাম্মদ নাসিম

শেখ হাসিনার সরকার ক্ষমতায় আছে বলে দেশ স্থিতিশীল

নিজস্ব প্রতিবেদক
| নগর মহানগর

রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে সোমবার ‘বাংলাদেশ জরায়ু মুখ ক্যান্সার প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণে জাতীয় কৌশলপত্র’ শীর্ষক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম - আলোকিত বাংলাদেশ

যে কোনো উন্নয়নের জন্য রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা দরকার। দেশে এখন শান্তি আছে, স্বস্তি আছে, হরতাল-অবরোধ নেই। এখন কাজ করে আনন্দ পাওয়া যায়। শেখ হাসিনার সরকার ক্ষমতায় আছে বলে দেশ স্থিতিশীল আছে। সোমবার ‘জরায়ু মুখ ক্যান্সার প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণের জাতীয় কৌশলপত্র বাংলাদেশ ২০১৭-২০২২’ শীর্ষক একটি প্রচারণামূলক কর্মশালার উদ্বোধনী বক্তব্যে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম এসব কথা বলেন। 
স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়, জাতিসংঘ জনসংখ্যা তহবিল ও বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থা আয়োজিত রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের এ কর্মশালায় আরও বক্তব্য রাখেন ইএনএফপিএ’র স্বাস্থ্য বিভাগের প্রধান ডা. সত্যনারায়ণ দোরায়াস্বামী, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব বাবলু কুমার সাহা, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) প্রোভিসি অধ্যাপক শহীদুল্লাহ শিকদার, বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থার প্রতিনিধি শিরিনা তেলহুড়া ও ডা. বারদেম জানা, পরিবার কল্যাণ বিভাগের প্রধান জিএম সালেহউদ্দীন, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক সুলতান মোহম্মদ সামসুজ্জামান প্রমুখ। মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন বিএসএমএমইউ’র অধ্যাপক আশরাফুন্নেছা। এতে সভাপতিত্ব করেন স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ। 
প্রধান অতিথির বক্তব্যে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ‘যে কোনো বিষয়েই সফলতা আসে কর্মকৌশল বাস্তবায়নে। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে আমরা স্বাস্থ্য ক্ষেত্রে বেশকিছু সফলতা অর্জন করেছি। বিদেশেও প্রশংসিত হয়েছি। অনেক ক্ষেত্রে বাংলাদেশ নেপাল, ভুটান ও পাকিস্তান থেকে এগিয়ে আছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কর্মশক্তি আমাদের এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে।’ তিনি বলেন, ক্যান্সারকেও দমাতে হবে। এ ক্ষেত্রে প্রথমে রোগ-প্রতিরোধ, পরে নিরাময় প্রচেষ্টা। সামাজিকভাবে একে সমস্যা হিসেবে চিহ্নিত করতে হবে। ক্যান্সারের কারণ যেমন খাদ্যাভ্যাস, শারীরিক পরিশ্রম কম, যন্ত্রনির্ভরতা, তেমনি বাল্যবিবাহ। বাল্যবিবাহ সামাজিক সমস্যা। এতে কিশোরীদের শারীরিক সমস্যা বাড়ে; তারা ক্যান্সার ঝুঁকিতে থাকে।