আজকের পত্রিকাআপনি দেখছেন ২৭-০৯-২০১৮ তারিখে পত্রিকা

দাতব্য ট্রাস্ট মামলা

যুক্তিতর্ক ছাড়াই রায় চায় দুদক

আলোকিত ডেস্ক
| প্রথম পাতা

জিয়া দাতব্য ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার তিনটি ধার্য তারিখে আসামিপক্ষ যুক্তিতর্ক উপস্থাপন না করায় বিচারের এ অংশটি বাদ দিয়েই রায়ের তারিখ নির্ধারণের জন্য আদালতে আবেদন করেছে রাষ্ট্রপক্ষ। বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে করা এ মামলার বাদী দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) কৌঁসুলি মোশাররফ হোসেন কাজল বুধবার ঢাকার পঞ্চম বিশেষ জজ আদালতে এ লিখিত আবেদন করেন। যুক্তিতর্ক ছাড়া রায় ঘোষণার আবেদনের পাশাপাশি বিচারকের প্রতি দুই আসামির অনাস্থার কথা জানিয়ে সময়ের আবেদনের বিষয়ে ৩০ সেপ্টেম্বর আদেশের দিন ঠিক করে 

দেন বিচারক আখতারুজ্জামান। এ মামলার কার্যক্রম চলছে ঢাকার নাজিমউদ্দিন রোডের পুরানো কেন্দ্রীয় কারাগারের ভেতরে বসানো পঞ্চম বিশেষ জজ আদালতের অস্থায়ী এজলাসে। খবর বিডিনিউজের।
এ কারাগারেই আরেকটি ভবনে গত ফেব্রুয়ারি থেকে কারাবন্দি জিয়া এতিমখানা ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় পাঁচ বছরের সাজাপ্রাপ্ত সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া। অসুস্থতার কারণে তাকে গত সাত মাসে একবারও আদালতে হাজির করতে না পারায় জিয়া দাতব্য ট্রাস্ট মামলার যুক্তিতর্ক শুনানি শেষ করতে সরকারের নির্দেশে সেপ্টেম্বরের শুরুতে আদালত স্থানান্তর করা হয় কারাগারের ভেতরে। কিন্তু তারপরও খালেদাকে আদালতে আনতে না পেরে ২০ সেপ্টেম্বর তার অনুপস্থিতিতেই বিচার চালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত দেন বিচারক মো. আখতারুজ্জামান। আসামিপক্ষে যুক্তিতর্ক উপস্থাপনের জন্য দেওয়া সময়ের তৃতীয় দিন বুধবার বেলা ১১টা থেকে ৪০ মিনিটের মতো আদালতের কার্যক্রম চলে।
যুক্তিতর্ক ছাড়াই রায়ের তারিখ নির্ধারণের পক্ষে যুক্তি দিয়ে দুদকের আইনজীবী কাজল আদালতে বলেন, আসামিপক্ষের আইনজীবীরা আদালতে আসছেন, সব ধরনের বক্তব্য দিচ্ছেন, কিন্তু যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করছেন না। ফৌজদারি কার্যবিধির চ্যাপ্টার ২০ অনুযায়ী এ মামলায় যুক্তিতর্ক উপস্থাপনের সুযোগ না থাকলেও তাদের সে সুযোগ দেওয়া হয়েছে। বিচার ‘বিলম্বিত করার জন্য’ আসামিপক্ষ আদালতে বার বার সময় বাড়ানোর আবেদন করে যাচ্ছে মন্তব্য করে তিনি বলেন, সুবিচার ও ন্যায়বিচারের স্বার্থে রায়ের তারিখ নির্ধারণের আবেদন আমরা করছি। আদালতের বাইরের ‘চক্রান্ত, ষড়যন্ত্র ও পরামর্শে’ আসামিপক্ষ ‘একগুঁয়ে’ আচরণ করছে বলেও মন্তব্য করেন দুদকের আইনজীবী। রাষ্ট্রপক্ষের এ বক্তব্যের বিরোধিতায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার অন্যতম আইনজীবী মাসুদ আহমেদ তালুকদার আদালতে বলেন, প্রসিকিউশন বলছে, আমরা ন্যায়বিচার ব্যাহত করছি। অথচ আমরা প্রতি তারিখেই আদালতে আসছি, আদালতে আমাদের আর্জি জানাচ্ছি। আমাদের সময়ের আবেদন নামঞ্জুর হওয়ার পরও বারবার আসছি, আমরা আদালতের কাছেই তো আসব।