আজকের পত্রিকাআপনি দেখছেন ২৮-০৯-২০১৮ তারিখে পত্রিকা

আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার দিবস আজ

নিজস্ব প্রতিবেদক
| শেষ পাতা
আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার দিবস আজ। ২৮ সেপ্টেম্বর বিশ্বের বিভিন্ন দেশের জনগণকে নিজ নিজ দেশের সব ধরনের তথ্য জানার অধিকারের বিষয়ে সচেতনতা বাড়াতে প্রতি বছর এ দিবস পালন করা হয়। এ বছর আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার দিবসের প্রতিপাদ্য নির্ধারণ করা হয়ছে ‘মুক্ত সমাজের জন্য উত্তম আইন : টেকসই উন্নয়নে তথ্যে অভিগমন’। বাংলাদেশেও দিবসটি পালনে বিভিন্ন সংগঠন সভা-সেমিনারসহ বিভিন্ন কর্মসূচির আয়োজন করেছে। রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী এ উপলক্ষে পৃথক বাণী দিয়েছেন। রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বাণীতে বলেছেন, তথ্যপ্রাপ্তি ও জানা মানুষের গণতান্ত্রিক ও নাগরিক অধিকার। বাংলাদেশে তথ্য জানার অধিকার মানুষের অন্যতম মৌলিক ও সাংবিধানিক অধিকার হিসেবে স্বীকৃত। এ অধিকারকে অগ্রাধিকার দিয়েই বর্তমান সরকার ‘তথ্য অধিকার আইন-২০০৯’ প্রণয়ন করেছে ও তথ্য কমিশন গঠন করেছে। তথ্য কমিশনের উদ্যোগে বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও ‘আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার দিবস’ পালিত হচ্ছে জেনে আমি আনন্দিত। নানা চড়াই-উতরাই অতিক্রম করে বাংলাদেশ আজ উন্নয়ন ও অগ্রগতির মহাসড়কে এগিয়ে যাচ্ছে। স্বল্পোন্নত দেশের তালিকা থেকে টেকসই উত্তরণের লক্ষ্যে সরকার এরই মধ্যে ব্যাপক কার্যক্রম গ্রহণ করেছে। তথ্য অধিকার আইনের সফল প্রয়োগ জনগণকে দেশের উন্নয়ন কর্মকা- সম্পর্কে স্বচ্ছ ধারণা দিতে সহায়ক ভূমিকা পালন করে। আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার দিবস উদযাপনের মাধ্যমে উন্নয়ন কর্মকা-ে জনসম্পৃক্ততা বৃদ্ধি পাবে এবং উন্নয়ন কার্যক্রম আরও স্বচ্ছ ও গতিশীল হবে- এ প্রত্যাশা করি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাণীতে বলেছেন, জনগণের ক্ষমতায়নে তথ্য একটি প্রয়োজনীয় অনুষঙ্গ। জনগণের এ অধিকারকে সম্মান দিয়ে আমরা নবম জাতীয় সংসদের প্রথম অধিবেশনে ‘তথ্য অধিকার আইন-২০০৯’ পাস করি। এ আইনের আওতায় আমাদের সরকার তথ্য কমিশন গঠন করেছে। ফলে জনগণ ও গণমাধ্যমের প্রয়োজনীয় তথ্যপ্রাপ্তির অধিকার সুপ্রতিষ্ঠিত হয়েছে। জনগণের ক্ষমতায়ন ত্বরান্বিত হয়েছে। আমি আশা করি এ আইন বাস্তবায়নের মাধ্যমে জনগণের গণতান্ত্রিক অধিকার ও সুশাসন প্রতিষ্ঠিত হবে। আমি আশা করি, তথ্য অধিকার আইনের অধিকতর ব্যবহারের মাধ্যমে মুক্ত সমাজ গঠন ও জনগণের ক্ষমতায়ন নিশ্চিত হবে, গণতন্ত্র ও সুশাসন আরও সুদৃঢ় হবে। জাতির পিতার সোনার বাংলাদেশ বিনির্মাণের পথে আরও একধাপ এগিয়ে যাবে। তথ্য কমিশন প্রতি বছরের মতো এ বছরও ঢাকাসহ দেশব্যাপী আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার দিবস উদযাপনের লক্ষ্যে তিন দিনব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। এ উপলক্ষে আজ সকাল ১০টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে তথ্য কমিশন কর্তৃক প্রেস কনফারেন্সের আয়োজন করা হয়েছে। এতে প্রধান অতিথি থাকবেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়কমন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। এছাড়া ৩০ সেপ্টেম্বর সকাল ৯টা ১৫ মিনিটে প্রেসক্লাব থেকে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি পর্যন্ত একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি অনুষ্ঠিত হবে। তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু র‌্যালির উদ্বোধন করবেন। একই দিন শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় সংগীত ও নৃত্যশালা মিলনায়তনে আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার দিবস উপলক্ষে সকাল ১০টা ১৫ মিনিট থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হবে। অনুষ্ঠানে তথ্যমন্ত্রী প্রধান অতিথি এবং তথ্য মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট তারানা হালিম ও তথ্য সচিব বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন। প্রধান তথ্য কমিশনার, তথ্য কমিশন প্রেস কনফারেন্স এবং আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করবেন মরতুজা আহমদ।