আজকের পত্রিকাআপনি দেখছেন ২৯-০৯-২০১৮ তারিখে পত্রিকা

এমপি হওয়ার স্বপ্নে এলাকায় সক্রিয়

বরিশালে নির্বাচনি মাঠে একঝাঁক তরুণ নেতা

খান রফিক, বরিশাল
| শেষ পাতা
আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বরিশালে একঝাঁক তরুণ নেতা মাঠে সক্রিয় রয়েছেন। সংসদ সদস্য হওয়ার স্বপ্নে বিভোর এসব নেতা চষে বেড়াচ্ছেন নির্বাচনি এলাকা। গণসংযোগ, পথসভা, সহায়তাসহ নানা কর্মসূচিতেও তাদের কর্মতৎপরতা বেশ নজর কেড়েছে ভোটারদের। আওয়ামী লীগ, বিএনপি এমনকি স্বতন্ত্র হিসেবেও মনোনয়ন পাওয়ার আশায় রয়েছেন তারুণ্যদীপ্ত এ নেতারা। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, বরিশাল জেলার ছয়টি আসনে এমন প্রায় একডজন তরুণ নেতা তাদের প্রতিশ্রুতিতে ভিন্ন ধারার রাজনীতি আর উন্নয়নের কথা প্রচার করছেন ভোটারদের মাঝে। বরিশাল-৩ (হিজলা-মুলাদি) আসনে ৫ বছর ধরে নীরবে উন্নয়ন কাজ করে এলাকার মানুষের কাছে সমাজসেবক হিসেবে পরিচিতি পেয়েছেন তরুণ নেতা আতিকুর রহমান আতিক। তিনি ওয়ার্কার্স পার্টির সহযোগী সংগঠন যুবমৈত্রীর কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি এবং বরিশাল বিভাগ উন্নয়ন ফোরামের সাধারণ সম্পাদক। এলাকার মানুষের কাছে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন তরুণ নেতা আতিকুর রহমান। বহু শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, মসজিদ, মন্দিরে অনুদান দিয়েছেন। প্রত্যন্ত এলাকার যোগাযোগ ব্যবস্থার পরিবর্তন ও নদীভাঙন রোধে তার অবদান উল্লেখযোগ্য। ঈদ, পূজায় যুবমৈত্রী নেতা আতিকের শাড়ি-কাপড় বিতরণ এলাকাবাসীর নজর কেড়েছে। জানতে চাইলে বরিশাল-৩ আসনে স্বতন্ত্র এমপি প্রার্থী আতিকুর রহমান আতিক বলেন, জনপ্রতিনিধি না হয়েও তিনি সাধারণ মানুষের ভাগ্য ফেরাতে নিবিড়ভাবে লেগে আছেন বাবুগঞ্জ ও মুলাদিতে। এখানকার ৫৭টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নতুন ভবন স্থাপনে তার অবদান রয়েছে। ৩০টি বিদ্যালয়ে তিনি কম্পিউটার ও আইসিটি ল্যাব করেছেন। এখানকার মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করতে চান তিনি। যে কারণে এরই মধ্যে গণসংযোগে নেমে পড়েছেন। এ আসনে অপর এক তরুণ নেতা মো. মিজানুর রহমান। তিনি যুবলীগের কেন্দ্রীয় সহ-সম্পাদক। তরুণ উদ্যোক্তা ও আওয়ামী লীগ নেতা সালাহউদ্দিন রিপন বরিশাল-৫ (সদর) থেকে জাতীয় নির্বাচনে অংশ নিতে ইচ্ছুক। তিনি রেলওয়ে শ্রমিক লীগের উপদেষ্টা এবং বরিশালের সামাজিক সংগঠন এসআর সমাজকল্যাণ সংস্থার কর্ণধার। সদর উপজেলার ১০টি ইউনিয়ন ও নগরীর সব অসহায় দৃষ্টিহীনের দৃষ্টি ফিরিয়ে আনতে বিভিন্ন ওয়ার্ডে চক্ষুশিবিরের আয়োজন করেছে তার এ সংস্থাটি। তিন মাসে বরিশাল সদর উপজেলা ও সিটি এলাকায় ১২টি ক্যাম্পের মাধ্যমে প্রায় ১৮ হাজার রোগীর চোখের চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। তরুণ নেতা সালাউদ্দিন রিপন তার এসআর সংস্থার মাধ্যমে এরই মধ্যে ১৭ হাজারেরও বেশি অসচ্ছল-অসহায় মহিলাকে হাঁস-মুরগি পালনের মাধ্যমে স্বাবলম্বী করেছেন। সংস্থার পক্ষ থেকে গৃহহীনদের ঘর তৈরিতে প্রায় ১ হাজার পরিবারকে ঢেউটিন দেওয়া হয়েছে। ১৩৫টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের পরীক্ষার্থীদের ফরম পূরণে বোর্ড ফি প্রদান করেছে তার এ সংস্থা। চবাড়িয়া ইউনিয়নের বাটনা গ্রামে এক একর জমিতে উন্মুক্ত কবরস্থান তৈরি করেছেন। রায়পাশা-কড়াপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান খোকন বলেন, সালাউদ্দিন রিপন তার স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন এসআর সমাজকল্যাণ সংস্থার মাধ্যমে দুস্থদের পাশে যেভাবে দাঁড়িয়েছেন তা নজিরবিহীন। তিনি সদর আসনের মানুষের কেবল চোখে নয়, ভাগ্যেও আলো ফেরাতে চেষ্টা করছেন। জানতে চাইলে তরুণ নেতা সালাউদ্দিন রিপন বলেন, সদর আসনের মানুষের একটি বড় অংশই দারিদ্র্যের কারণে শিক্ষাদীক্ষায় পিছিয়ে। ভবিষ্যতে অর্থাভাবে কারও পড়াশোনা যেন বন্ধ না হয়, সেজন্য স্থায়ী কর্মসূচি নেওয়ারও স্বপ্ন রয়েছে। আত্মকর্মসংস্থান সৃষ্টির বিষয়টিকেও অগ্রাধিকার দিচ্ছেন তিনি। দুস্থ ও অসহায় নারী-পুরুষকে স্বাবলম্বী করার জন্য অর্থ সহায়তা দিচ্ছেন। আসন্ন জাতীয় নির্বাচনেও তিনি বরিশাল-৫ আসন থেকে নির্বাচনে অংশ নিতে আগ্রহী। এজন্য জনগণের দ্বারে দ্বারে ছুটছেন প্রতিনিয়ত। বরিশাল-৫ আসন থেকে অপর তরুণ কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাডভোকেট বলরাম পোদ্দারও মনোনয়ন চাচ্ছেন। তিনি বলেন, দীর্ঘদিন ধরে আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে ওতপ্রোতভাবে জড়িত। দল যদি চায় তবে তিনি একাদশ সংসদ নির্বাচনে বরিশাল সদর আসন থেকে প্রার্থী হবেন। বরিশাল-৪ (হিজলা-মেহেন্দিগঞ্জ) আসন থেকে এবার আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী দলের কেন্দ্রীয় আন্তর্জাতিক সম্পাদক ড. শাম্মী আহমেদ। এজন্য মেঘনা ঘেরা হিজলা ও মেহেন্দিগঞ্জে তার অনুসারীরা তৎপরতা চালাচ্ছেন বলে জানা গেছে। এ আসনে বিএনপি থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশী অপর তরুণ নেতা অ্যাডভোকেট এম হেলাল উদ্দিন। জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম ঢাকার সাবেক যুগ্ম সম্পাদক অ্যাডভোকেট এম হেলাল উদ্দিন দীর্ঘদিন ওই দুই উপজেলায় প্রচারণা চালাচ্ছেন। বিশেষ করে, মেহেন্দিগঞ্জে একাধিক মসজিদ নির্মাণে সহায়তা করে ও নির্যাতিত নেতাদের সহায়তা করেছেন অ্যাডভোকেট হেলাল। জানতে চাইলে তরুণ নেতা অ্যাডভোকেট এম হেলাল উদ্দিন বলেন, মেঘনার তীরের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করতে তিনি মনোনয়ন চাইবেন দলের কাছে। বরিশাল-২ (উজিরপুর-বানারীপাড়া) আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী ৯০ দশকের রাজপথ কাঁপানো ছাত্রলীগ নেত্রী অ্যাডভোকেট সৈয়দা রুবিনা আক্তার মিরা। কেন্দ্রীয় এ আওয়ামী লীগ নেত্রী বাংলাদেশ মহিলা ক্রীড়া সংস্থার সহসভাপতি। উজিরপুরের বাসিন্দা আওয়ামী লীগ নেত্রী অ্যাডভোকেট মিরা গেল কয়েক মাস ধরে উজিরপুর ও বাবুগঞ্জে ব্যাপক গণসংযোগ করে যাচ্ছেন। উজিরপুর ও বাবুগঞ্জের জনগণকে ভিন্ন ধারার রাজনীতি আর জীবনমানের উন্নয়ন ঘটাতে এ আসন থেকে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন চাইবেন বলে জানান অ্যাডভোকেট মিরা। বরিশাল-৬ (বাকেরগঞ্জ) থেকে বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী তরুণ নেতা নুরুল ইসলাম খান মাসুদ। কেন্দ্রীয় যুবদলের এ নেতা দীর্ঘ দিন ধরে ওই এলাকায় জনগণের পাশে থেকে কাজ করছেন। জানতে চাইলে তরুণ নেতা নুরুল ইসলাম খান মাসুদ বলেন, দলের ক্রান্তিলগ্নেও বাকেরগঞ্জের মানুষের পাশে সব সময় থেকেছেন। এবারের নির্বাচনে তাই তিনি দলের কাছে মনোনয়ন চাইবেন।