আজকের পত্রিকাআপনি দেখছেন ৩০-০৯-২০১৮ তারিখে পত্রিকা

অ্যালার্জি থেকে মুক্তি পানীয়তে

আলোকিত ডেস্ক
| শেষ পাতা

ঘরোয়া উপায়ে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াহীনভাবেও অ্যালার্জির সমস্যা নিরাময় সম্ভব। অ্যালার্জি সমস্যা থেকে মুক্তি দেবে এ ভেষজ পানীয়। অ্যালার্জির সমস্যা অনেকেরই রয়েছে। অন্যদের কাছে অ্যালার্জি তেমন একটা গুরুতর ব্যাপার মনে না হলেও শরীর ও মন দুটোই বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে অ্যালার্জির ঠেলায়। যাদের মারাত্মক অ্যালার্জির সমস্যা রয়েছে, চিকিৎসকরা তাদের অ্যালার্জি উদ্রেককারী উপাদানগুলো থেকে দূরে থাকার এবং প্রয়োজনে ওষুধ খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন। কিন্তু অ্যালার্জির ওষুধের সবচেয়ে বড় পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হলো ঘুম ও তন্দ্রাচ্ছন্নতা। তবে ঘরোয়া উপায়ে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াহীনভাবেও অ্যালার্জির সমস্যা নিরাময় সম্ভব। আসুন জেনে নেওয়া যাক ঘরোয়া উপায়ে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াহীন ভেষজ পানীয় তৈরির পদ্ধতি এবং এর কার্যকারিতা।
পানীয় তৈরি করতে লাগবে দুটি আপেল, দুটি গাজর আর একটি বড় বিট। প্রতিটি ফল ভালো করে পানি দিয়ে ধুয়ে ছোট ছোট করে কেটে নিন। ব্লেন্ডারে বা জুসারে সবক’টি উপকরণ দিয়ে ব্লেন্ড করে রস ছেঁকে নিন বা জুসারে জুস তৈরি করে নিন। চাইলে না ছেঁকেও খেতে পারেন। কারণ, এ সবজি এবং ফলের আঁশও খুব উপকারী। প্রতিদিন এক গ্লাস পান করে নিন। দেখবেন অ্যালার্জির সমস্যা অনেকটাই কমে গেছে। আপেলে রয়েছে ভিটামিন-এ, বি ও সি; যা আমাদের শরীরের পরিপাকতন্ত্রকে পরিষ্কার রাখতে সহায়তা করে এবং হজম সংক্রান্ত নানা সমস্যা দূরে রাখে। বিটে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, বিটেইন, এনজাইম এবং ভিটামিন-এ; যা গলব্লাডার ও লিভারের কর্মক্ষমতা বৃদ্ধিতে বিশেষভাবে সহায়ক। আর গাজরে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যা আমাদের রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে এবং গাজরের অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল উপাদান লিভার ও পরিপাকতন্ত্রকে রোগমুক্ত রাখতে সহায়তা করে। এ মিশ্রণ নিয়মিত সেবনের ফলে শরীরের রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়। ফলে অ্যালার্জির মতো ছোটখাটো সমস্যা নিজে থেকেই অনেকটা কমে যায়।