আজকের পত্রিকাআপনি দেখছেন ৩০-০৯-২০১৮ তারিখে পত্রিকা

প্রধান সড়কের পাশের ডাস্টবিন সরানোর ঘোষণা চসিক মেয়রের

চট্টগ্রাম ব্যুরো
| খবর

চট্টগ্রাম নগরে প্রধান প্রধান সড়কের দুই পাশে স্তূপ ময়লা-আবর্জনার ডাস্টবিনগুলো সরিয়ে নেওয়ার ঘোষণা দিলেন সিটি মেয়র আলহাজ আ জ ম নাছির উদ্দীন। তিনি নগরীর প্রধান সড়কে কয়েকটি স্পটে ময়লা স্তূপের কথা উল্লেখ করে বলেন, সড়কে যত্রতত্র ময়লা স্তূপ দৃষ্টিকটু ও পরিবেশের পাশাপাশি নগরীর সৌন্দর্য বিঘিœত করছে। আমাদের এ প্রিয় নগরকে ক্লিন ও গ্রিন সিটি গড়তে এরই মধ্যে ১ হাজার ৩৫০টি ডাস্টবিনের মধ্যে ৬০০টি ডাস্টবিন অপসারণ করা হয়েছে। অবশিষ্ট ৭৫০টি ডাস্টবিন এক মাসের মধ্যে সড়ক থেকে সরিয়ে নেওয়ার জন্য বিকল্প জায়গা খুঁজে বের করার জন্য সংশ্লিষ্টদের প্রতি নির্দেশ দিয়েছেন মেয়র। বৃহস্পতিবার দুপুরে সিটি করপোরেশন কনফারেন্স হলে জাইকা সাহায্যপুষ্ট সিটি গভর্নেন্স প্রকল্পের অধীনে গঠিত সিভিল সোসাইটি কো-অর্ডিনেশন কমিটির সভায় সভাপতির বক্তব্যে মেয়র এসব কথা বলেন।
সভায় চসিক প্যানেল মেয়র, কাউন্সিলর, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সামসুদ্দোহা, সচিব মোহাম্মদ আবুল হোসেনসহ সিভিল সোসাইটি কো-অর্ডিনেশন কমিটির সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। সভায় আইইবি’র সহ-সভাপতি এমএ রশিদ, অধ্যক্ষ আনোয়ারা আলম, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের সাবেক কাউন্সিলর রেখা আলম, চিটাগাং চেম্বারের সাবেক পরিচালক মাহফুজুল হক শাহ, চসিকের কাউন্সিলর সাইয়েদ গোলাম হায়দার মিন্টু ও মোরশেদ আকতার চৌধুরী আলোচ্যসূচির ওপর তাদের মতামত তুলে ধরেন। 
মেয়র নগরীর সার্বিক উন্নয়ন ও নাগরিক সেবার ক্ষেত্রে সিভিল সোসাইটি বিশেষজ্ঞ এবং প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়াসহ সর্বস্তরের নাগরিকদের আন্তরিক সহযোগিতা কামনা করেন। মেয়র বলেন, তারকা হোটেল, রেস্টুরেন্টে খাবার খেতে হলে ক্রেতাদের ভ্যাট দিতে হয়। সেখানে খাবারের মূল্যের সঙ্গে ১৫ শতাংশ ভ্যাট এবং ১০ শতাংশ সার্ভিস চার্জ সংযোজিত থাকে। সেক্ষেত্রে ক্রেতাদের কোনো ওজর-আপত্তি থাকে না। কিন্তু সিটি করপোরেশনকে গৃহকর প্রদান করার সময় হোল্ডারদের যত আপত্তি। এখানে নানামুখী উদ্যোগ পরিকল্পনা গ্রহণের পরও গৃহকর আদায়ের হার মাত্র ৩৮ শতাংশ।