আজকের পত্রিকাআপনি দেখছেন ১৬-০৫-২০১৯ তারিখে পত্রিকা

কাঁদলেন এবং কাঁদালেন রাউজানের ইউএনও

চট্টগ্রাম ব্যুরো
| নগর মহানগর

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক হিসেবে পদোন্নতি লাভ করায় বিদায়লগ্নে কাঁদলেন এবং কাঁদালেন রাউজানের বিদায়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শামীম হোসেন রেজা। তার এই বিদায় বেলায় রাউজান উপজেলা প্রশাসনের বিভিন্ন বিভাগের কর্মকর্তা, কর্মচারী, আনসার সদস্য, উপজেলার সাধারণ মানুষ হৃদয়বিদারক অবস্থায় অশ্রুসিক্ত হয়ে তাকে বিদায় জানান। 

মঙ্গলবার সকালে শামীম হোসেন রেজা তার ফুলঝুড়ি বাসভবন থেকে নতুন কর্মস্থল বান্দরবানের উদ্দেশে রওনা হওয়ার আগে তার সহকর্মীসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ সেখানে অশ্রুসিক্ত নয়নে তাকে বিদায় জানান। সবার চোখের পানি দেখে ইউএনও শামীম হোসেন রেজাও চোখের পানি ধরে রাখতে পারেননি। নিজের হাতে সৃজনকরা বাগানের ফুল ও বৃক্ষগুলোর মায়া কান্নায় ভেঙে পড়েন তিনি। এসময় নারী-পুরুষ সহকর্মীরা শামীম হোসেন রেজাকে জড়িয়ে কান্না করতে দেখা যায়। 
বিদায়লগ্নে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, রাউজানে আসলে বোঝা যায়, বাংলাদেশে উন্নয়ন করা কতটা সম্ভব, এখান থেকে যাওয়ার সময় উপলব্ধি হয় কতটা ভালো একটা এলাকা ছেড়ে যাচ্ছি! রাউজানের মানুষকে ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি আরও বলেন, দীর্ঘ ২ বছর ৭ মাস ২৫ দিন সবাই আমাকে সহযোগিতা করেছেন। প্রশাসন পরিচালনা করতে গিয়ে সব শ্রেণি-পেশার মানুষের সহযোগিতা পেয়েছি। জানা যায়, ২০১৬ সালের ২০ সেপ্টেম্বর তিনি রাউজান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) হিসেবে যোগদান করেন। শব্দদূষণ রোধে বিশেষ অবদান, উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে ফুলের বাগান সৃজন, শিল্পকলা একাডেমি প্রতিষ্ঠা, ফুলঝুড়ি শিশুপার্ক প্রতিষ্ঠা, সাঁতার প্রশিক্ষণ কর্মসূচি, বাল্যবিবাহ রোধসহ নানা কর্মকা-ে উপজেলাবাসীর মনে বিশেষ স্থান করে নিয়েছিলেন শামীম হোসেন রেজা।