আজকের পত্রিকাআপনি দেখছেন ১৬-০৬-২০১৯ তারিখে পত্রিকা

উপজেলা পরিষদ নির্বাচন

ইভিএমে ভোট হবে বিজয়নগরে

ফরহাদুল ইসলাম পারভেজ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া
| দেশ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর উপজেলা নির্বাচনে ৬৩ কেন্দ্রের সবক’টিতে ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট গ্রহণ করা হবে। জেলায় সর্বশেষ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন এটি। তাই ১৮ জুনের নির্বাচনকে ঘিরে প্রচার-প্রচারণা জমে উঠেছে। ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর সংসদীয় আসন এলাকার একটি উপজেলা এটি। পাঁচ বছর বিজয়নগর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালনকারী তানভীর এখানে নৌকা প্রতীক নিয়ে আওয়ামী লীগের প্রার্থী। তার প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে স্বতন্ত্র প্রার্থী প্রবাসী ব্যবসায়ী লুৎফুর রহমান মুকাই আলীর স্ত্রী নাছিমা মুকাই আলী ‘ঘোড়া’ প্রতীক নিয়ে নির্বাচনের মাঠে রয়েছেন। এরশাদ সরকারের সাবেক উপমন্ত্রী ও জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট হুমায়ুন কবির, কেন্দ্রীয় জাতীয় পার্টির নেতা শাহ জামাল রানা, তার অনুসারী জেলা ও উপজেলার নেতাকর্মীরা নাছিমার পক্ষে কাজ করছেন বলে জানা যায়। বিএনপির স্থানীয় নেতাকর্মীদেরও নাছিমাকে নীরবে সমর্থন করার ধারণা অনেকের। ফলে প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে নাছিমা শক্ত অবস্থান তৈরি করেছেন বলে মনে করেন অনেকে। উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি জহিরুল ইসলাম ভূঁইয়া বলেন, অবস্থার পরিবর্তন হচ্ছে। স্বতন্ত্র প্রার্থী টাকা-পয়সা দিয়ে অবস্থান তৈরি করার চেষ্টা করছেন। এটা থাকবে না। আমরা ওভারকাম করতে পারব। নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আরও দুই প্রতিদ্বন্দ্বী রয়েছেন। তারা হচ্ছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী মোসাহেদ হোসেন (দোয়াত কলম) ও সৈয়দ মাঈন উদ্দিন (আনারস)। পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন তিনজন। তারা হচ্ছেন মাহমুদুর রহমান মান্না (চশমা), মৃণাল কান্তি চৌধুরী (মাইক) ও মোখলেছুর রহমান লিটন (টিউবওয়েল)। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ফয়জুননাহার (হাঁস) ও সাবিত্রী রানী (কলস)। এখানে ভোটার সংখ্যা ১ লাখ ৭২ হাজার। আওয়ামী লীগ প্রার্থী অ্যাডভোকেট তানভীর ভূইয়া বলেন, রোজা ও ঈদের কারণে দলের নেতাকর্মীরা মাঠে সোচ্চার ছিলেন না। এখন পর্যন্ত ৬০ থেকে ৬৫ শতাংশ লোক কাজে নেমেছেন। ফলে আমার অবস্থা অনেক ভালো। তবে নাছিমা মুকাই আলী অভিযোগ করেন, তার প্রচার-প্রচারণা শুরু থেকেই বাধাপ্রাপ্ত হচ্ছে। হামলা চালিয়ে তার গাড়িবহর পোড়ানো হয় বলেও অভিযোগ তার। তবু উপজেলা নির্বাচনে ভোট সুষ্ঠু হবে কি না, সন্দেহে আছেন ভোটাররা।