আজকের পত্রিকাআপনি দেখছেন ১২-০৭-২০১৯ তারিখে পত্রিকা

শিক্ষকের শরীরে কেরোসিন

ইউএসটিসির চার শিক্ষার্থী বহিষ্কার ইউএসটিসির চার শিক্ষার্থী বহিষ্কার

| প্রথম পাতা

চট্টগ্রাম ব্যুরো : চট্টগ্রামের বেসরকারি ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজির (ইউএসটিসি) ইংরেজি বিভাগের অধ্যাপক মাসুদ মাহমুদের শরীরে কেরোসিন দেওয়ার ঘটনায় চারজনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছে কর্তৃপক্ষ। বৃহস্পতিবার সকালে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে ইউএসটিসির প্রক্টর কাজী নুর-ই-আলম সিদ্দিকী জানান, এ ঘটনায় দায়ের করা মামলায় গ্রেপ্তার ইংরেজি বিভাগের স্নাতকোত্তর শ্রেণির ছাত্র মাহমুদুল হাসানকে আজীবনের জন্য বহিষ্কার করা হয়েছে। এছাড়া তদন্তে অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় ইংরেজি বিভাগের সপ্তম সেমিস্টারের ছাত্র মো. শেখ রাসেল শাহেন শাহ ও মো. মইনুল আলম এবং স্নাতকোত্তর শ্রেণির দ্বিতীয় সেমিস্টারের ছাত্র মোহাম্মদ আলী হোসাইনকে এক বছরের জন্য বহিষ্কার করা হয়েছে। সংবাদ সম্মেলনে ইউএসটিসির প্রক্টর কাজী নুর-ই-আলম সিদ্দিকী বলেন, তদন্ত প্রতিবেদনের ভিত্তিতে চারজনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। তবে আত্মপক্ষ সমর্থনের জন্য শাস্তিপ্রাপ্তদের ১৫ জুলাই পর্যন্ত সময় দেওয়া হয়েছে। এর আগে ২ জুলাই দুপুর ১২টার দিকে নগরীর খুলশীতে অবস্থিত ইউএসটিসির ক্যাম্পাসে ইংরেজি বিভাগের উপদেষ্টা অধ্যাপক মাসুদ মাহমুদকে অফিস থেকে টেনে বের করে রাস্তায় নিয়ে শরীরে কেরোসিন ঢেলে লাঞ্ছিত করেন একদল শিক্ষার্থী। ঘটনার পর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পাঁচ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়। ওই কমিটি চারজনকে অভিযুক্ত করে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়। তবে তদন্ত প্রতিবেদন প্রত্যাখ্যান করেছেন অধ্যাপক মাসুদ মাহমুদ। তিনি বলেন, আমি সুনির্দিষ্টভাবে ২১ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছিলাম। মাত্র চারজন ছাড়া বাকিদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। এ তদন্ত আমি প্রত্যাখ্যান করছি।