আজকের পত্রিকাআপনি দেখছেন ১২-০৯-২০১৯ তারিখে পত্রিকা

নেতানিয়াহুর দখল পরিকল্পনার তীব্র নিন্দায় আরব বিশ্ব

আলোকিত ডেস্ক
| আন্তর্জাতিক

বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু মঙ্গলবার ফিলিস্তিনের পশ্চিম তীরের অধিকৃত জর্ডান উপত্যকা ও ডেড সি-র উত্তরাংশ ইসরাইলের অন্তর্ভুক্ত করার নির্বাচনি প্রতিশ্রুতি দেন- বিবিসি

  • পশ্চিম তীরে জর্ডান উপত্যকাকে ইসরাইলের অন্তর্ভুক্ত করার নির্বাচনি প্রতিশ্রুতি 
  • ওআইসির পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের বৈঠক ডেকেছে সৌদি আরব
  • গাজায় বিমান হামলা

প্রধানমন্ত্রী হিসেবে পুনঃনির্বাচিত হলে ফিলিস্তিনের পশ্চিম তীরের অধিকৃত জর্ডান উপত্যকা ও ডেড সি-র উত্তরাংশ ইসরাইলের অন্তর্ভুক্ত করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু। মঙ্গলবার ইসরাইলের দক্ষিণাঞ্চলীয় বন্দর শহর আশদোদে এক নির্বাচনি প্রচারণা সমাবেশে এ প্রতিশ্রুতি করেন তিনি। তার এ বক্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে আরব বিশ্ব ।
আগের নির্বাচন শেষে জোট সরকার গঠনে ব্যর্থ হওয়ায় আবার ভোট চাইতে হচ্ছে নেতানিয়াহুকে। আগামী ১৭ সেপ্টেম্বর নির্বাচন। নির্বাচনের দিন যত এগিয়ে আসছে ততই প্রচারণায় সর্বশক্তি নিয়োগ করছেন ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী। মঙ্গলবার তিনি বলেছেন, নতুন সরকার গড়ার পর জর্ডান উপত্যকা ও ডেড সি-র উত্তরাংশে ইসরাইলি সার্বভৌমত্ব প্রতিষ্ঠা করতে চাই। আরব লিগ নেতানিয়াহুর পরিকল্পনাকে ‘আগ্রাসন’ ও ‘বিপজ্জনক কর্মকা-’ হিসেবে আখ্যায়িত করেছে। সংস্থাটি বলছে, নেতানিয়াহুর পরিকল্পনা আন্তর্জাতিক আইনের লঙ্ঘন। এ ধরনের পদক্ষেপ শান্তি প্রতিষ্ঠার ভিত্তি নষ্ট করবে। এক যৌথ বিবৃতিতে তুরস্ক, জর্ডান এবং সৌদি আরবও এর কঠোর সমালোচনা করেছে। এরই মধ্যে ৫৭ জাতির অর্গানাইজেশন অব ইসলামিক কো-অপারেশনের (ওআইসির) পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের জরুরি ডেকেছে সৌদি আরব। ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস জানিয়েছেন, নেতানিয়াহু এ পরিকল্পনা নিয়ে এগিয়ে গেলে ইসরাইলের সঙ্গে স্বাক্ষরিত সব চুক্তি ও ওইসব চুক্তির বাধ্যবাধকতার সমাপ্তি ঘটবে। ফিলিস্তিনের প্রধানমন্ত্রী মোহাম্মদ শতায়েহ বলেছেন, ফিলিস্তিনের কোনো এলাকা নেতানিয়াহুর নির্বাচনি প্রচারের অংশ নয়। জর্ডান উপত্যকা ও ডেড সি-র উত্তরাংশ পশ্চিম তীরের এক-তৃতীয়াংশ এলাকাজুড়ে বিস্তৃত। ১৯৬৭ সালের আরব-ইসরাইল যুদ্ধের সময় পূর্ব জেরুজালেমসহ পশ্চিম তীর, গাজা ও সিরিয়ার গোলান মালভূমি দখল করে নেয় ইসরাইল। ১৯৮০ সালে ইসরাইল পূর্ব জেরুজালেম, ১৯৮১ সালে গোলান মালভূমি নিজেদের অন্তর্ভুক্ত করে নেয়, কিন্তু পশ্চিম তীরকে অন্তর্ভুক্ত করা থেকে বিরত থাকে। ইসরাইলের এসব আগ্রাসী উদ্যোগ দীর্ঘদিন আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পায়নি। তবে বর্তমান ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসন যুক্তরাষ্ট্রের অনুসৃত নীতি থেকে সরে এসে দুটি পদক্ষেপেরই স্বীকৃতি দেয়।  ফিলিস্তিনের গাজায় বুধবার কমপক্ষে ১৫টি লক্ষ্যবস্তুতে বিমান হামলা চালিয়েছে ইসরাইল। এর আগে মঙ্গলবার রকেট হামলার সতর্কতামূলক সাইরেন শুনে ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহু নির্বাচনি প্রচারণার মঞ্চ ছাড়তে বাধ্য হন। ইসরাইল দাবি করেছে গাজা ভূখ- থেকে ওই রকেট ছোড়া হয়েছে। এ ঘটনার পর বুধবার গাজায় বিমান হামলা চালায় তেল আবিব। ইসরাইলি বাহিনী দাবি করেছে, গাজায় অস্ত্র উৎপাদন কারখানা, হামাসের ব্যবহৃত নৌবাহিনীর দপ্তর ও টানেলসহ ১৫টি লক্ষ্যবস্তুতে হামলা চালানো হয়েছে। ডয়েচে ভেলে, বিবিসি