আজকের পত্রিকাআপনি দেখছেন ১১-১০-২০১৯ তারিখে পত্রিকা

অস্ত্র ব্যবসায়ীসহ আটক ৬৫

আলোকিত ডেস্ক
| দেশ

রাজশাহীতে অস্ত্র ব্যবসায়ীসহ ৬৩ ও খুলনার কয়রায় সুন্দরবনের সন্দেহভাজন দুই মৎস্য ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়েছে। ব্যুরো ও প্রতিনিধির পাঠানো খবরÑ

রাজশাহী : রাজশাহীতে বুধবার সন্ধ্যায় এক অস্ত্র ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। তার নাম মোহাম্মদ আলী। চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুর উপজেলার আলীনগর গ্রামে তার বাড়ি। বাবার নাম মো. মুকুল। মোহাম্মদ আলীর কাছ থেকে দুটি বিদেশি পিস্তল, ১৪ রাউন্ড গুলি এবং চারটি ম্যাগাজিন উদ্ধার করা হয়েছে। এছাড়া জব্দ করা হয়েছে তার ব্যবহৃত একটি মোটরসাইকেল, একটি মোবাইল সেট ও দুটি সিমকার্ড। র‌্যাব-৫ এর এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বৃহস্পতিবার এ কথা জানানো হয়েছে। অন্যদিকে বুধবার রাত থেকে বৃহস্পতিবার ভোর পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে রাজশাহী মহানগর পুলিশ (আরএমপি) ৩৫ এবং জেলা পুলিশ ২৭ জনকে গ্রেপ্তার করেছে। আরএমপির মুখপাত্র গোলাম রুহুল কুদ্দুস ও জেলা পুলিশের মুখপাত্র ইফতেখায়ের আলম জানান, অভিযানে হেরোইন, গাঁজা, ইয়াবাসহ বেশ কিছু পরিমাণ মাদকদ্রব্য উদ্ধার হয়েছে। 
কয়রা : র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) খুলনা-৬ এর সদস্যরা বৃহস্পতিবার খুলনার কয়রা উপজেলার ৪নং কয়রা সরকারি পুকুর পাড়, পল্লীমঙ্গল, উত্তরচক পূর্বপাড়া, মঠবাড়ি এলাকায় অভিযান চালিয়ে নুর হোসেন ও ইয়াছিন নামে সুন্দরবনের দুই সন্দেহভাজন মৎস্য ব্যবসায়ীকে আটক করেন। জানা গেছে, ৪নং কয়রা এলাকার কয়েকজন মৎস্য ব্যবসায়ী দীর্ঘদিন ধরে বনদস্যুদের নাম ব্যবহার করে মাছ ও কাঁকড়া ধরার শত শত জেলের কাছ থেকে মোটা অঙ্কের চাঁদা আদায় করে আসছে। এ অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে চিহ্নিত চাঁদাবাজ বনদস্যুর সহযোগী মাছ ব্যবসায়ীদের পাকড়াও করতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী প্রায় সময় ওই এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে। ২৪ সেপ্টেম্বর র‌্যাবের একটি দল ৪নং কয়রা সরকারি পুকুর পাড় এলাকায় সুন্দরবনের মাছ ব্যবসায়ী নুর হোসেনের বাড়িতে অভিযান চালায়। তাকে না পেয়ে নুর হোসেনকে র‌্যাব খুঁজতে শুরু করে।  তিনি র‌্যাব কার্যালয়ে হাজির হন। পরে তাকে নিয়ে র‌্যাব উত্তরচক পূর্বপাড়া থেকে ইয়াছিন গাজীকে আটক করে। র‌্যাব কর্মকর্তারা জানান, এখানকার কয়েকজন মাছ ব্যবসায়ী বনদস্যু বাহিনীর নাম ব্যবহার করে জেলেদের কাছ থেকে দীর্ঘদিন ধরে চাঁদা আদায় করছে। এদের নির্মূল করতে অভিযান অব্যাহত থাকবে।