আজকের পত্রিকাআপনি দেখছেন ১১-১০-২০১৯ তারিখে পত্রিকা

সবুজ সংকেত দেয়নি যুক্তরাষ্ট্র : পম্পেও

সিরিয়ায় কুর্দিদের বিরুদ্ধে তুরস্কের হামলা জোরদার

এলাকা ছাড়ছে হাজারো বাসিন্দা

আলোকিত ডেস্ক
| আন্তর্জাতিক

সিরিয়ার রাস আল আইন শহরে তুরস্কের ব্যাপক বোমাবর্ষণের কারণে এলাকা ছাড়ছেন বাসিন্দারা- বিবিসি

সিরিয়ায় কুর্দিদের বিরুদ্ধে বিমান হামলা ও স্থল অভিযান জোরদার করেছে তুর্কি সামরিক বাহিনী। বৃহস্পতিবার অভিযানের দ্বিতীয় দিনের মধ্য সীমান্ত অঞ্চলে তুমুল লড়াইয়ের খবর পাওয়া গেছে। সংঘর্ষে সাত বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়েছেন। তুর্কি সামরিক বাহিনী জানিয়েছে, তারা কিছু লক্ষ্যস্থল নিয়ন্ত্রণে নিয়েছে। এদিকে চলমান তুর্কি অভিযানের কারণে হাজারও মানুষ তাদের বাড়িঘর ফেলে পালাচ্ছেন বলে খবর মিলেছে। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলের কুর্দি নিয়ন্ত্রিত এলাকা থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহার করার পরই সেখানে সামরিক অভিযান শুরু করেছে তুরস্ক। সিরিয়ার কুর্দি মিলিশিয়াদের শত্রু হিসেবে বিবেচনা করে তুরস্ক। এদিকে কুর্দিদের বিরুদ্ধে তুরস্কের অভিযানে যুক্তরাষ্ট্রের ‘সবুজ সংকেত’ দেওয়ার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও। তিনি বলেছেন, কুর্দি অধ্যুষিত এলাকার মার্কিন সেনাদের বিপদের বাইরে রাখতেই তাদের সেখান থেকে সরিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সিরিয়ায় আইএসবিরোধী অভিযানে কুর্দি যোদ্ধাদের সমর্থন দিয়েছিল যুক্তরাষ্ট্র। তবে তুর্কি অভিযানের আগে আগে মার্কিন সেনা সরিয়ে নেওয়ায় ক্ষুব্ধ কুর্দি যোদ্ধারা বলেন, যুক্তরাষ্ট্র তাদের পিঠে ছুরি মেরেছে। মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের সিদ্ধান্তের পর পরই তুরস্ক সিরিয়ার কুর্দি নিয়ন্ত্রিত এলাকায় ‘অপারেশন পিস স্প্রিং’ নামে অভিযান চালানোর ঘোষণা দেয়।
বৃহস্পতিবার তুর্কি অভিযানের দ্বিতীয় দিনে সিরিয়ার রাস আল আইন ও তাল আবিয়াদ শহরের মধ্যবর্তী এলাকায় তুমুল লড়াইয়ের খবর দেয় কুর্দি সূত্রগুলো। তুরস্কের মদতপুষ্ট সিরিয়ার বিদ্রোহীগোষ্ঠী ফ্রি সিরিয়ান আর্মিও কুর্দিবিরোধী যুদ্ধে যোগ দিয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, রাস আল আইন শহরে বেশ কয়েকটি বিমান হামলা চালানো হয়েছে। সামরিক বিমান ওই এলাকায় টহল ও বোমাবর্ষণ করছে বলেও জানা গেছে। মূলত জনবিরল এ এলাকায় আরব বংশোদ্ভূতরা বসবাস করেন। কুর্দি রেড ক্রিসেন্ট জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার হামলায় দুই শিশুসহ সাতজন নিহত হয়েছেন। এছাড়া আরও ১৯ জন গুরুতর আহত হন। তাদের মধ্যে চার শিশু রয়েছে।
এদিকে সিরিয়ায় তুরস্কের এ অভিযানে পশ্চিমা দেশগুলো উদ্বেগ জানিয়েছে। পাঁচ ইউরোপীয় দেশ যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, জার্মানি, বেলজিয়াম ও পোল্যান্ডের অনুরোধে বৃহস্পতিবার এ অভিযান নিয়ে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে আলোচনা হওয়ার কথা। শনিবার কায়রোতে জরুরি বৈঠক ডেকেছে আরব লিগও। 
মার্কিন নিরাপত্তা হেফাজতে দুই ব্রিটিশ জঙ্গি : সিরিয়ার কুর্দিদের হাতে আটক ইসলামিক স্টেটের (আইএস ) দুই ‘শীর্ষ’ জঙ্গিকে নিজেদের নিরাপত্তা হেফাজতে নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। বুধবার এক মার্কিন প্রতিরক্ষা কর্মকর্তা একথা জানান। দুই ব্রিটিশ জঙ্গি ‘দ্য বিটলস’ নামে আইএসে পরিচিত। নাম প্রকাশ না করার শর্তে ওই প্রতিরক্ষা কর্মকর্তা বলেন, আমি নিশ্চিত করছি যে, আমরা কুর্দি নেতৃত্বাধীন এসডিএফ বাহিনীর হাত থেকে দুই শীর্ষ আইএস জঙ্গিকে নিরাপত্তা হেফাজতে নিয়েছি। এ কর্মকর্তা আরও বলেন, দুই ব্রিটিশ জঙ্গিকে সিরিয়া থেকে সরিয়ে একটি নিরাপদ স্থানে রাখা হয়েছে। তবে তাদের কোথায় রাখা হয়েছে, সে ব্যাপারে সুনির্দিষ্ট করে কিছু বলা হয়নি। যুদ্ধ আইন অনুযায়ী তাদের সামরিক হেফাজতে রাখা হয়েছে। বিবিসি