আজকের পত্রিকাআপনি দেখছেন ৮-১২-২০১৯ তারিখে পত্রিকা

কুষ্টিয়া ও গোপালগঞ্জে দুই খুন

নড়াইলে গৃহবধূর লাশ উদ্ধার

আলোকিত ডেস্ক
| দেশ

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে ইসলামী জলসায় ছুরিকাঘাতে এক যুবক ও গোপালগঞ্জে এক কাঠমিস্ত্রিকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। এছাড়া নড়াইলে নিজের ঘর থেকে এক গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-
কুষ্টিয়া : কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে ইসলামী জলসা চলাচালীন সময় ছুরিকাঘাতে মান্না খাঁ নামের এক যুবক খুন হয়েছেন। এ ঘটনায় চারজনকে আটক করেছে পুলিশ। শুক্রবার রাতে উপজেলার চর সাদিপুর ইউনিয়নের গোবিন্দপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত মান্না একই গ্রামের জামাল খাঁর ছেলে। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, স্থানীয় মসজিদে ইসলামী জলসা চলাকালীন সময়ে মহিলাদের উত্ত্যক্ত করায় প্রতিবাদ করে মান্না। এ ঘটনা কেন্দ্র করে পাবনা জেলার কিছু বখাটে ছেলে মান্নাকে ছুরিকাঘাত করে। গুরুতর আহত অবস্থায় স্থানীয়রা তাকে পাবনা হাসপাতালে ভর্তি করলে সেখানে মান্নার মৃত্যু হয়। 
গোপালগঞ্জ : গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে ফিরোজ মোল্লা নামে এক কাঠ মিস্ত্রিকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। শনিবার ভোরে কাশিয়ানী উপজেলার এমএ খালেক ডিগ্রি কলেজ মাঠে এ ঘটনা ঘটে। কাশিয়ানী থানার ওসি আজিজুর রহমান জানান, শনিবার ভোর রাতে এমএ খালেক ডিগ্রি কলেজ মাঠে ফিরোজ মোল্লাকে কুপিয়ে হত্যা করে ফেলে রেখে যায় দুর্বৃত্তরা। 
নড়াইল : নড়াইলের কালিয়া উপজেলার পারবিষ্ণুপুুর গ্রামে তামান্না নামের এক গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ ওঠেছে শ্বশুরবাড়ির লোকদের বিরুদ্ধে। শনিবার সকালে বাড়ির বিছানা থেকে পুলিশ নিহত তামান্নার লাশ উদ্ধার করে। ঘটনার পর থেকে স্বামী শিপুলসহ পরিবারের লোকজন পলাতক রয়েছেন। নিহতের স্বজনদের অভিযোগ, নির্যাতন করে শ্বাসরোধে তাকে হত্যা করা হয়েছে। কালিয়া থানার ওসি রফিকুল ইসলাম জানান, কালিয়া উপজেলার খড়রিয়া গ্রামের আকতার হোসেনের মেয়ে তামান্নার সঙ্গে স্বামী শিপন শেখের প্রায় পারিবারিক কলহ চলত। লাশের গলায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। লাশের ময়নাতদন্তের জন্য নড়াইল সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।