আজকের পত্রিকাআপনি দেখছেন ২০-০১-২০২০ তারিখে পত্রিকা

আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে শেষ হলো বিশ^ ইজতেমা

গাজীপুর প্রতিনিধি
| প্রথম পাতা

টঙ্গীর তুরাগ তীরে রোববার বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বে আখেরি মোনাজাতে অংশ নেন লাখো মানুষ ষ আলোকিত বাংলাদেশ

টঙ্গীতে কড়া নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে রোববার তাবলিগ জামাতের ৫৫তম বিশ^ ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব শেষে হয়েছে। ২০২০ সালের বিশ্ব ইজতেমা সমাপ্তি হয় আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে। বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বে মাওলানা সা’দ কান্ধলভির অনুসারীদের অংশগ্রহণে বিশ^ মুসলিম উম্মাহর দ্বিতীয় বৃহত্তম মুসলিম সমাবেশে ভারতের দিল্লির নিজামউদ্দিন মারকাজের শূরা সদস্য মাওলানা
জামশেদ বেলা ১১টা ৫০ মিনিট থেকে ১২টা ৭ মিনিট পর্যন্ত টানা ১৭ মিনিট মোনাজাত পরিচালনা করেন। মোনাজাতে সারা বিশে^র মুসলিম উম্মাহর ঐক্য, শান্তি, সমৃদ্ধি কামনা করা হয়। তিনি দুনিয়া ও আখেরাতের জিন্দিগির গুনাখাতা মাফ করার ফরিয়াদ জানিয়ে বলেন, যে দীন ইসলামের বিধান অনুসারে চলবে এবং হজরত মুহাম্মদ (সা.) এর জীবনাদর্শ অনুসরণ করবে, সে দুনিয়া ও আখেরাতে সফলতা অর্জন করবে। ঈমানকে শক্তিশালী করতে হলে মানুষকে মসজিদের পরিবেশে বসাতে হবে। মুসলমানের নামাজ ছাড়ার প্রশ্নই আসে না। নামাজ এমনভাবে আদায় করতে হবে, যেমন নবী করিম (সা.) আদায় করেছেন। তিনি সমগ্র বিশে^র মুসলিম উম্মাহর গুনাখাতা মাফ করার জন্য আল্লাহর দরবারে ফরিয়াদ জানান।
মোনাজাতের আগে বাদ ফজর থেকে ইজতেমায় বয়ান করেছেন ভারতের মাওলানা ইকবাল হাফিজ। তিনি বলেন, আমাদের দাওয়াতের কাজে দিনে ৮ ঘণ্টা সময় দিতে হবে। জবরদস্তি করে নয়, তাজিমের সঙ্গে বুঝিয়ে কাউকে মসজিদে নিয়ে আসতে হবে। আমাদের প্রত্যেকটি কাজ আল্লাহকে রাজি ও খুশি করার জন্যই করতে হবে। তবে প্রথম পর্বের তুলনায় এ পর্বের আখেরি মোনাজাতে মুসল্লির সমাগম কিছুটা কম হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। যানবাহন চলাচল নিয়ন্ত্রণের কারণে বিশ্ব ইজতেমার আখেরি মোনাজাতে অংশ নিতে ঢাকা, গাজীপুরসহ আশপাশের বিভিন্ন জেলার মুসল্লিরা ভোর থেকেই টঙ্গীর ইজতেমা ময়দানের দিকে ছুটে এসেছেন। 
আখেরি মোনাজাতের জন্য গণযোগাযোগ অধিদপ্তর ও গাজীপুর জেলা তথ্য অফিস মাইক দিয়ে বিশেষ ব্যবস্থা নিয়েছে। এ বছর বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব শুরু হয় ১০ জানুয়ারি। ১২ জানুয়ারি আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে মাওলানা জুবায়ের অনুসারীদের প্রথম পর্ব শেষ হয়। প্রথম পর্বে ৬৪টি জেলার মুসল্লিরা অংশ নেন। দ্বিতীয় পর্বের ইজতেমাতেও দিল্লির মাওলানা সা’দ অনুসারী ৬৪ জেলার মুসল্লিরা অংশগ্রহণ করেছেন।
বিশ্ব ইজতেমায় এসে শনিবার রাতে আরও দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে এবারের দ্বিতীয় পর্বের ইজতেমায় অংশ নিতে এসে ১০ মুসল্লির মৃত্যু হয়েছে। টঙ্গী হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, হৃদরোগে আক্রান্ত ও বার্ধক্যজনিত কারণে তারা মারা যান।