আজকের পত্রিকাআপনি দেখছেন ২০-০১-২০২০ তারিখে পত্রিকা

হজযাত্রীদের বিমান ভাড়া বৃদ্ধির প্রস্তাব মন্ত্রণালয়ের

নিজস্ব প্রতিবেদক
| প্রথম পাতা

এ বছর হজযাত্রীদের বিমানের টিকিটে জনপ্রতি ভাড়া আগের বছরের চেয়ে ২৬ হাজার টাকা বাড়িয়ে ১ লাখ ৫৪ হাজার টাকা করার প্রস্তাব দিয়েছে বিমান মন্ত্রণালয়। তবে ১২ হাজার টাকা বৃদ্ধিতে সম্মত হয়েছে ধর্ম মন্ত্রণালয়। রোববার দুপুর ১২টায় বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে হজ টিকিটের ভাড়া নির্ধারণী সভায় এ প্রস্তাব দেওয়া হয়। তবে কোনো সিদ্ধান্ত ছাড়াই এ সভা শেষ হয়। পরবর্তী সভা কবে নাগাদ হবে তা জানা যায়নি। 

হজ টিকিটের মূল্য বৃদ্ধি পেলে হজ প্যাকেজের মূল্যও বাড়বে। হজ টিকিটের মূল্য নির্ধারণে বিলম্ব 
হওয়ায় ধর্ম মন্ত্রণালয় হজ প্যাকেজও আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করতে পারছে না। গেল বছর সরকারি ব্যবস্থাপনায় সর্বনিম্ন হজ প্যাকেজ ছিল ৩ লাখ ৪৪ হাজার টাকা। 
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, রোববার অনুষ্ঠিত সভায় গেল বছরের চেয়ে এবার বিমান কর্তৃপক্ষ কোনো কারণ ছাড়াই ২৬ হাজার টাকা বাড়িয়ে হজ টিকিটের মূল্য ১ লাখ ৫৪ হাজার টাকা নির্ধারণের প্রস্তাব দেয়। এতে হাব নেতারা বিমানের হজ টিকিটের অযৌক্তিক মূল্য বৃদ্ধির কড়া প্রতিবাদ জানায়। সভায় হজ টিকিটে ভাড়া বৃদ্ধির কারণ জানতে চাইলে বিমানের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ভাড়া বৃদ্ধির কোনো যৌক্তিক কারণ ব্যাখ্যা দিতে পারেননি। 
সভায় ধর্ম প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট শেখ মো. আবদুল্লাহ গেল বছরের চেয়ে এবার প্রতি হজ টিকিটের মূল্য ১২ হাজার টাকা বাড়িয়ে সর্বমোট ১ লাখ ৪০ হাজার টাকা নির্ধারণে সম্মতি দেন। কিন্তু বিমান কর্তৃপক্ষ এতেও রাজি হয়নি। পরে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী হজ টিকিটের ভাড়া নির্ধারণে কোনো সিদ্ধান্ত ছাড়াই সভা মুলতবি ঘোষণা করেন। 
হজ টিকিট ভাড়া নির্ধারণী সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন, বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মহিবুল হক, ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. নূরুল ইসলাম, অতিরিক্ত সচিব (হজ) এবিএম আমিন উল্লাহ নূরী, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের এমডি মোকাব্বের হোসেন, পরিচালক হজ মো. সাইফুল ইসলাম, হাবের সভাপতি এম শাহাদাত হোসাইন তসলিম, সিনিয়র সহ-সভাপতি মাওলানা ইয়াকুব শরাফতী, মহাসচিব ফারুক আহমদ সরদার, সাউদিয়া আরাবিয়ান এয়ারলাইন্সের দুইজন প্রতিনিধি, আটাব সভাপতি মনছুর আহমদ কালাম, মহাসচিব মো. মাজহারুল হক প্রমুখ। 
সভা শেষে হাব সভাপতি এম শাহাদাত হোসাইন তসলিম বলেন, বিমানের হজ টিকিটের অযৌক্তিক ভাড়ার প্রস্তাব আমরা মেনে নেইনি। তারা বর্তমানে বিমান ও সাউদিয়া এয়ারলাইন্সের ওমরাযাত্রীদের সউদীতে আসা যাওয়ার ভাড়ার সঙ্গে মিল রেখে হজ টিকিটের মূল্য ১ লাখ টাকার বেশি নয় বলেও উল্লেখ করেন। হাব নেতারা বলেন, বিমান হজযাত্রীদের জিম্মি করে হজ টিকিটে আকাশচুম্বী ভাড়া নির্ধারণের পাঁয়তারা করছে।