logo
প্রকাশ: ১২:০০:০০ AM, শনিবার, মার্চ ৫, ২০১৬
প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন
উলিপুরের কাজীর মসজিদ
ফয়জার রহমান রানু, উলিপুর

কুড়িগ্রাম জেলার উলিপুর উপজেলার ঐতিহ্যবাহী প্রাচীন স্থাপনা কাজীর মসজিদ। মসজিদটি উপজেলার প্রাণকেন্দ্র থেকে প্রায় ৮ কিলোমিটার পশ্চিমে দলদলিয়া ইউনিয়নের প্রবেশপথে অবস্থিত। তিন গম্বুজবিশিষ্ট মসজিদটির পুরনো ভবন আকারে বেশ প্রশস্ত এবং শক্ত ভিত্তির ওপর দন্ডায়মান। এটি নির্মিত হয়েছে ইট, পাথর ও সুরকি ব্যবহার করে। মসজিদের পুরনো ভবনটি কে, কখন ও কীভাবে তৈরি করেন তার সঠিক ইতিহাস জানা যায়নি। অনেকে বলেন, ২০০ বছর আগে গভীর অরণ্যে এ মসজিদটি আবিষ্কার করা হয়। কেউ কেউ মনে করেন, এটি আল্লাহ নিজেই সৃষ্টি করেছেন, যা ভূগর্ভ থেকে উপরে ওঠে এসেছে। ধর্মপ্রাণ বুদ্ধিজীবীরা বলেন, এটি কোনো গায়েবি মসজিদ নয়। কয়েকশ’ বছর আগে এ অঞ্চলের কোনো ধর্মপ্রাণ শাসক মসজিদটি নির্মাণ করেছিলেন। সে সময় সংখ্যায় মুসলমানরা কম ছিল। কোনো যুদ্ধবিগ্রহ বা শাসন কাজের সুবিধা অথবা ঊর্ধ্বতন মহলের নির্দেশে শাসকের কার্যস্থল স্থানান্তরিত হয়। স্বল্প সংখ্যক অধিবাসীও তাদের বাসস্থান অন্যত্র সরিয়ে নেয়। ফলে জনশূন্য হয়ে পুরো এলাকা ধীরে ধীরে জঙ্গলে পরিণত হয়। এর নামকরণ নিয়ে বিভিন্ন মতবাদ প্রচলিত আছে। তবে পুব দেয়ালে ফারসি ভাষায় খোদাই করা একটি শিলালিপি থেকে জানা যায়, মসজিদটির নির্মাতা হচ্ছেন কাজী কুতুবুদ্দিন। তার নামানুসারে এর নামকরণ করা হয় কাজীর মসজিদ। ধারণা করা হয়, এ উপমহাদেশে ধর্ম প্রচারে আসা রাসুল (সা.) এর সাহাবি ছিলেন তিনি। মসজিদের পুবপাশে প্রাচীনকালের সানবাঁধানো একটি পুকুর রয়েছে। পুকুরে মাছ চাষ হয় এবং পানি ব্যবহার করে মুসল্লিরা অজু করেন। মসজিদের উত্তরে ঈদগাহ ও পশ্চিমে কবরস্থানসহ প্রায় ৩ একর জমি ইটের প্রাচীর দিয়ে ঘিরে রাখা হয়েছে। প্রতি শুক্রবার জুমার নামাজ আদায়ের জন্য দূর-দূরান্ত থেকে তিন সহস্রাধিক ধর্মপ্রাণ মুসল্লি এখানে সমবেত হন। সেদিন ক্ষীর, পোলাও-গোশত, হাঁস-মুরগি, গরু-ছাগল, ভেড়া, টাকাসহ প্রচুর উপঢৌকন মসজিদে জমা হয়। এতে মসজিদের বার্ষিক আয় দাঁড়ায় দুই লক্ষাধিক টাকা। জনশ্রুতি আছে, এ গায়েবি মসজিদে কেউ কিছু দান করলে উদ্দেশ্য সফল হয়।

সম্পাদক ও প্রকাশক : কাজী রফিকুল আলম । সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক আলোকিত মিডিয়া লিমিটেডের পক্ষে ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫ থেকে প্রকাশিত এবং প্রাইম আর্ট প্রেস ৭০ নয়াপল্টন ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত। বার্তা, সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক বিভাগ : ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫। ফোন : ৯১১০৫৭২, ৯১১০৭০১, ৯১১০৮৫৩, ৯১২৩৭০৩, মোবাইল : ০১৭৭৮৯৪৫৯৪৩, ফ্যাক্স : ৯১২১৭৩০, E-mail : [email protected], [email protected], [email protected]