logo
প্রকাশ: ১২:০০:০০ AM, শনিবার, নভেম্বর ২৫, ২০১৭
সরকার সমঝোতায় না এলে আন্দোলন : মওদুদ
আলোকিত ডেস্ক

সরকার সমঝোতায় না এলে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে আন্দোলনের বিকল্প থাকবে না বলে মনে করেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমদ। তবে শেষ মুহূর্তে হলেও সরকার সমঝোতায় আসবে বলে আশা করছেন তিনি। শুক্রবার নোয়াখালী জেলা বিএনপির কার্যনির্বাহী কমিটির সভায় মওদুদ এ কথা বলেন। খবর বিডিনিউজের।

মওদুদ বলেন, দেশ এখন গভীর সংকটের মধ্যে রয়েছে। আমরা ভোটের অধিকার হারিয়েছি, আমরা গণতন্ত্র হারিয়েছি, মৌলিক অধিকার হারিয়েছি, আইনের শাসন হারিয়েছি, সংবাদপত্রের-সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতা হারিয়েছি। এখন বিচার বিভাগের স্বাধীনতাও আমরা হারিয়েছি। খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের নেতৃত্বে, ২০দলীয় জোটের নেতৃত্বে এ অধিকারগুলো ফিরিয়ে আনতে দলের সবাইকে কাজ করার আহ্বান জানান তিনি। কয়েকদিন আগে জাতীয় প্রেসক্লাবে এক আলোচনায় তিনি বলেছিলেন, সরকার আলোচনায় না বসলে টেনে-হিঁচড়ে অসম্মানজনকভাবে ক্ষমতা থেকে নামানো হবে। ওই মন্তব্যকে ঘিরে সরকারি দলের তোপের মুখে পড়েছিলেন বিএনপি শাসনামলের এ মন্ত্রী।
মওদুদ বলেন, তারা চান সমঝোতার মাধ্যমে এ সংকটের সমাধান হোক। ২ বছরে আন্দোলনের কর্মসূচি না দিয়ে তারা অনেক ধৈর্যধারণ করেছেন। তাদের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলার পর মামলা হয়েছে, সরকারের নিপীড়ন-নির্যাতন অব্যাহত রয়েছে বলে অভিযোগ তোলেন তিনি। আমরা একটি পরিবেশ সৃষ্টি করতে চাই যাতে করে সমঝোতার মাধ্যমে আগামীতে অবাধ, সুষ্ঠুু নির্বাচন করতে পারি। আমি মনে করি সরকার শেষ মুহূর্তে হলেও বিরোধী দলের সঙ্গে সমঝোতায় এগিয়ে আসবে। তবে ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির মতো আরেকটি নির্বাচন বাংলাদেশের মাটিতে কোনোদিন হবে না বলে হুশিয়ার করেন তিনি। সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য মওদুদ এমন একটি পরিবেশ সৃষ্টির দাবি জানান যাতে সব মানুষ নির্দ্বিধায় ভোট দিতে পারে। ভোটের অধিকার যাতে তারা ফিরে পায়। সেই পরিবেশ সৃষ্টি করার জন্য দলের সবাইকে তিনি সংগ্রাম চালিয়ে যাওয়ার আহ্বান জানান।
জেলা শহরের একটি কমিউনিটি সেন্টারে অনুষ্ঠিত ওই সভায় মওদুদ আহমদ আরও বলেন, সংবিধান মানুষের জন্য, মানুষ সংবিধানের জন্য নয়। তিনি বলেন, ১৯৯১ সালে সাহাবুদ্দিনের সরকার যে নির্বাচন করেছে, সে নির্বাচনও সংবিধানে ছিল না; কিন্তু সমঝোতার মাধ্যমে তখন সে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছিল। জেলা বিএনপি সভাপতি গোলাম হায়দার বিএসসির সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহমানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন দলের জাতীয় নির্বাহী কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ শাহজাহান, বরকতউল্লা বুলু, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা জয়নুল আবদিন ফারুক ও যুগ্ম মহাসচিব মাহবুব উদ্দিন খোকন ও সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবের রহমান শামীম।

সম্পাদক ও প্রকাশক : কাজী রফিকুল আলম । সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক আলোকিত মিডিয়া লিমিটেডের পক্ষে ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫ থেকে প্রকাশিত এবং প্রাইম আর্ট প্রেস ৭০ নয়াপল্টন ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত। বার্তা, সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক বিভাগ : ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫। ফোন : ৯১১০৫৭২, ৯১১০৭০১, ৯১১০৮৫৩, ৯১২৩৭০৩, মোবাইল : ০১৭৭৮৯৪৫৯৪৩, ফ্যাক্স : ৯১২১৭৩০, E-mail : [email protected], [email protected], [email protected]