logo
প্রকাশ: ১২:০০:০০ AM, বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৮
আশুরার আমল কী ও কেন

আগামীকাল শুক্রবার আশুরা। শুক্রবার ও আজ বৃহস্পতিবার আশুরার সুন্নত রোজা।
আশুরা কেন গুরুত্বপূর্ণ
আবদুল্লাহ বিন আব্বাস (রা.) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী করিম (সা.) মদিনায় আগমন করে দেখতে পেলেন ইহুদিরা আশুরার দিন রোজা পালন করছে। নবীজি (সা.) বললেন, এটি কী? তারা বলল, এটি একটি ভালো দিন। এ দিনে আল্লাহ তায়ালা বনি ইসরাইলকে তাদের দুশমনের কবল থেকে বাঁচিয়েছেন। তাই মুসা (আ.) রোজা পালন করেছেন। রাসুলুল্লাহ বললেন, মুসাকে অনুসরণের ব্যাপারে আমি তোমাদের চেয়ে অধিক হকদার। অতঃপর তিনি রোজা রেখেছেন এবং রোজা রাখার নির্দেশ দিয়েছেন। (বোখারি)।
আশুরার রোজার ফজিলত
আবদুল্লাহ বিন আব্বাস (রা.) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, আমি নবী করিম (সা.) কে রোজা রাখার জন্য এত অধিক আগ্রহী হতে দেখিনি; যত দেখেছি এ আশুরার দিন এবং এ মাস অর্থাৎ রমজান মাসের রোজার প্রতি। (বোখারি)।
আবু হুরায়রা (রা.) থেকে বর্ণিত, রাসুলুল্লাহ (সা.) এরশাদ করেন, ‘রমজানের পর সর্বোত্তম রোজা হচ্ছে আল্লাহর মাস মহরম (মাসের রোজা)।’ (মুসলিম)। রাসুলুল্লাহ (সা.) এরশাদ করেন, ‘আশুরার দিনের রোজার ব্যাপারে আমি আল্লাহর কাছে আশা করি, তিনি পূর্ববর্তী এক বছরের পাপ ক্ষমা করে দেবেন।’ (মুসলিম)। এটি আমাদের প্রতি মহান আল্লাহর অপার করুণা। তিনি একটি মাত্র দিনের রোজার মাধ্যমে পূর্ণ এক বছরের গোনাহ ক্ষমা করে দেন।
আশুরার রোজা কয়টি?
আবদুল্লাহ বিন আব্বাস (রা.) বর্ণনা করেন, যখন রাসুলুল্লাহ (সা.) আশুরার রোজা রাখলেন এবং (অন্যদের) রোজা রাখার নির্দেশ দিলেন লোকরা বলল, হে আল্লাহর রাসুল! এটি তো এমন দিন, যাকে ইহুদি ও খ্রিষ্টানরা বড় জ্ঞান করে, সম্মান জানায়। তখন রাসুলুল্লাহ (সা.) বললেন, আগামী বছর এ দিন এলে আমরা নবম দিনও রোজা রাখব ইনশাআল্লাহ। 
বর্ণনাকারী বলছেন, আগামী বছর আসার আগেই রাসুলুল্লাহ (সা.) এর ওফাত হয়ে গেছে। তাই আশুরার রোজার  সঙ্গে আগে বা পরে একটি মিলিয়ে দুটি রোজা রাখা সুন্নত। দুটি রোজা রাখার উদ্দেশ্যÑ ইহুদিদের সঙ্গে অমিল করা।
হরোমানা আক্তার

সম্পাদক ও প্রকাশক : কাজী রফিকুল আলম । সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক আলোকিত মিডিয়া লিমিটেডের পক্ষে ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫ থেকে প্রকাশিত এবং প্রাইম আর্ট প্রেস ৭০ নয়াপল্টন ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত। বার্তা, সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক বিভাগ : ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫। ফোন : ৯১১০৫৭২, ৯১১০৭০১, ৯১১০৮৫৩, ৯১২৩৭০৩, মোবাইল : ০১৭৭৮৯৪৫৯৪৩, ফ্যাক্স : ৯১২১৭৩০, E-mail : [email protected], [email protected], [email protected]