ঢাকা ২৩ জুলাই ২০২৪, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১ | বেটা ভার্সন

গৃহশিক্ষকের হাত ধরে পালালেন ছাত্রীর মা

গৃহশিক্ষকের হাত ধরে পালালেন ছাত্রীর মা

লালমনিরহাটের আদিতমারীতে আলামিন নামে এক গৃহশিক্ষকের সঙ্গে ছাত্রীর মা পালিয়ে যাওয়ার খবর পাওয়া গেছে। গত ৪ দিন থেকে তাদের খোঁজ পাচ্ছেন না পরিবারের লোকজন। গত ২ জুলাই আদিতমারী উপজেলার পলাশী ইউনিয়নের নামুড়ী এলাকায় এই ঘটনাটি ঘটে।

এদিকে পলাতক নারী কাকলি রানীর স্বামী অমল ভুইমালি থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযুক্ত ভাইভেট শিক্ষক আলামিন উপজেলার পলাশী ইউনিয়নের মদনপুর সবজি বাজার এলাকার ওসমান আলীর ছেলে।

জানা গেছে, আলামিন নামের এই শিক্ষক অমল ভুইমালির দ্বিতীয় শ্রেণীতে পড়ুয়া শিশু কন্যা অর্পনা রায় অনুরাধাকে প্রাইভেট পড়াতো। এরই একপর্যায়ে ভুক্তভোগী অমল ভুইমালির স্ত্রীর সাথে পরকীয়া সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে ওই শিক্ষক। বিষয়টি টের পেয়ে ভুক্তভোগী অমল ভুইমালি সপ্তাহ দুই পূর্বে ওই শিক্ষককে তার মেয়েকে পড়াতে নিষেধ করে দেয়। এরপর গত ২ জুলাই সন্ধ্যার পর ওই শিক্ষক আলামিন কাকলি রানীকে নিয়ে পালিয়ে যায়। হিন্দু নারীকে নিয়ে মুসলমান ছেলে নিরুদ্দেশ হওয়ায় বিষয়টি এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে।

ভুক্তভোগী অমল ভুইমালি বলেন, 'আমার স্ত্রীকে নিয়ে প্রাইভেট শিক্ষক পালিয়েছে। আমি থানায় অভিযোগ দিয়েছি। আমি গরীব মানুষ। আমি অর্থনৈতিকভাবে দূর্বল। থানা পুলিশ ৪ দিনেও আমাকে কোন সহযোগিতা করল না। আমার স্ত্রীকেও খুঁজে পাইনি। শিশু কন্যাকে নিয়ে বিপাকে আছি।

এলাকাবাসীরা জানান, প্রাইভেট পড়াতে এসে যদি ছাত্রীর মাকে নিয়ে শিক্ষক পালিয়ে যায়। আমরা তাহলে কাকে বিশ্বাস করব? আমরা এর বিচার চাই।

তবে এ ব্যাপারে আদিতমারী থানার ওসি মাহমুদ উন নবী বলেন, কোন অভিযোগ হয়েছে কি না এখনো জানি না। তবে শুনেছি ওই প্রাইভেট শিক্ষক ও নিখোঁজ গৃহিণী দু'জনেই প্রাপ্ত বয়স্ক। তারা স্বেচ্ছায় পালিয়েছে।

লালমনিরহাট,গৃহশিক্ষক
আরও পড়ুন -
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত