শরৎগীতি

শরৎটা খুব ভদ্র ঋতু নীরব পায়ে হাঁটে মিষ্টি রোদের স্বপ্ন জাগে বর্ষা-ধোয়া মাঠে। নদীর পানি ঘোলাটে হয় আকাশটা হয় নীল নায়ের মতো ভেসে বেড়ায় শাদা মেঘের চিল। জমির দেহে পলি জমে কাশেরা খায় দোল সুযোগ বুঝে আকাশ ঢালে বৃষ্টি-মেঘের ঝোল। শরৎকালেই দুর্গা আসে বাজে খুশির ঢাক ঘরে ঘরে শরৎকালটা দিব্যি বেঁচে থাক।
ছড়া লেখা
  ইচ্ছে হলেই যায় না লেখা ছড়া ছন্দ খুঁজে  পাই না
বিস্তারিত
মাকে খুঁজি
      মাগো তুমি হারিয়ে গেছ শিশির ভেজা প্রাতে। মাগো তুমি হারিয়ে গেছ
বিস্তারিত
বাবা আমার
কখন বাবা ফিরবে বাড়ি?  পথটি চেয়ে থাকি বাবার আদর পেতেই
বিস্তারিত
বর্ষা আসে
বর্ষা আসে এই বাংলায় বৃষ্টি পড়ে টুপ, হই চইটা আর
বিস্তারিত
ইচ্ছে করে
ইচ্ছে করে হঠাৎ করে  হারাই কোনো বনে, মনটা খুলে কথা
বিস্তারিত
বাবার কথা মনে পড়ে
ছোট্ট খুকি টুনটুনিটা দৌড়ে যখন আসে দৌড়ে এসে গা ঘেঁষে
বিস্তারিত