শরৎগীতি

শরৎটা খুব ভদ্র ঋতু নীরব পায়ে হাঁটে মিষ্টি রোদের স্বপ্ন জাগে বর্ষা-ধোয়া মাঠে। নদীর পানি ঘোলাটে হয় আকাশটা হয় নীল নায়ের মতো ভেসে বেড়ায় শাদা মেঘের চিল। জমির দেহে পলি জমে কাশেরা খায় দোল সুযোগ বুঝে আকাশ ঢালে বৃষ্টি-মেঘের ঝোল। শরৎকালেই দুর্গা আসে বাজে খুশির ঢাক ঘরে ঘরে শরৎকালটা দিব্যি বেঁচে থাক।
তমালের কাঁঠাল গাছ
‘বাঁশবাগানের মাথার ওপর চাঁদ উঠেছে ওই, মাগো আমার শোলক বলা
বিস্তারিত
আবরার
রক্ত তোমার আলোর প্রদীপ জ্বালায় রক্ত তোমার লাত্থি মারুক তালায়
বিস্তারিত
ব্যাঙের বুদ্ধি
চিবিদ বনে বাস করত বিরাট এক অজগর। সে বেশ লোভী,
বিস্তারিত
বোরহান মাসুদ
  গুটিবেঁধে মেঘ এলো যেই ডানপিটের হৈচৈ কাদামাটির মাঠখান আজ করছে
বিস্তারিত
রূপকথার রাজ্য ও কম্পিউটার
পরের সকালে ঙ এসে রাজ্যের সবাইকে জানাল কম্পিউটার আপাতত একটা
বিস্তারিত
তোমাদের আঁকা ছবি
ছবিটি এঁকেছে নারায়ণগঞ্জের চাইল্ড  কেয়ার স্কুলের প্রথম শ্রেণীর ছাত্রী  গাজী
বিস্তারিত