নতুন গোয়েন্দা আখ্যান

অলোকেশ রয় প্রাইভেট ডিটেকটিভ। চৌকস, সাহসী ও মেধাবী এ গোয়েন্দা একসময় সরকারি চাকরি করতেন। কিন্তু এখন তিনি পেশাদার গোয়েন্দা। শার্লক হোমস ও ফেলুদাকে তিনি আদর্শ মানেন। ক্রাইম রিপোর্টার শুভজিত ও আর্কিটেক্ট উর্বী তাকে রহস্য অনুসন্ধানে সাহায্য করেন। জলপিপি ও কফিমেকার উপন্যাসে আমরা অলোকেশকে দেখি দুর্দান্ত এক সত্যান্বেষীর ভূমিকায়। পাঁচ ফুট আট ইঞ্চি হাইট, উজ্জ্বল গায়ের রং, সুঠামদেহী এ গোয়েন্দা বস্তুত ‘কফিকোলিক’। কফি না খেলে তার মগজ খোলে না। তিনি অস্ত্রশস্ত্র কম ব্যবহার করেন, বরং ঘিলু খাটান বেশি। এরই ধারাবাহিকতায় আসছে অলোকেশের নতুন গোয়েন্দা আখ্যান ‘আলিম বেগের খুলি’। লিখেছেন অরুণ কুমার বিশ্বাস। 


রুদ্রর কবিতা উচ্চারণ থেকে কথনে
রুদ্রর বহির্মুখী চেতনারাশির ওপর তার ভাবকল্প ও সংরাগবহুলতার তোড় আছড়ে
বিস্তারিত
আলো জেলে রাখি কবিতার খাতায়
কী নীরব রাত! একা একা বসে লিখছি। লেখার মাঝে দুঃখগুলো
বিস্তারিত
কতিপয় বিচ্ছিন্ন মুহূর্তের টীকা
  ১. নিরন্তর শুষ্কতার বশে আমি এক মরুকাঠ; অথচ ঠান্ডাজলপূর্ণ কিছু
বিস্তারিত
রৈখিক রক্তে হিজলফুল
বৃষ্টি হৃদয় উঠোন ভিজিয়ে যায় বিপ্রতীপ বিভাবন আঁধারের ক্লান্তিলগ্নে চোখের
বিস্তারিত
অপারগতা
না তুষার ঝড় না মাইনাস ফোর্টি শীতের রাত তো, বুড়োটা কিছুক্ষণ
বিস্তারিত
যন্ত্রণার দীর্ঘশ্বাস
  অলীক স্বপ্ন, অসীম দহন, সমুখের হিসাব নিকাশ প্রদীপের শিখা ছিল
বিস্তারিত