রোদের গল্প

রোদ যতটুকু পালিয়ে যেতে চায় বনে
মেঘ তাকে ঘিরে রাখে ততটুকু মায়ায়
আমাদের রোদ ও মেঘ কিছুই নেই
মাথার উপরে যে আকাশ দ্বিধাগ্রস্ত দাঁড়িয়ে
আমরা হাত বাড়িয়েও তাকে ছুঁতে পারি না।

আমরা অমলকান্তির মতো রোদ হতে প্রার্থনা করি
প্রেমের চৌচির মাঠে দাঁড়িয়ে মেঘ হতে আরতি করি
আমরা প্রার্থনা করি নুহের মতো দিগন্তব্যাপী প্রলয়ে
জীবন থেকে কিনেছি জীবন, কিনেছি তীব্র দাহ-সন্তাপ

যতটুকু পালিয়ে যাই সবুজ বৃক্ষের দিকে, রৌদ্র ছুঁতেÑ
ততটুকু পোড়ে শরীর ততটুকু উত্তাপে।


ভাতঘুম
সুমন রহমান লাজুক ভঙিতে হাসে। তার মাথাটা নুয়ে আসে বুকের
বিস্তারিত
কাঠমান্ডুর দরবারে
নেপালের কাঠমান্ডুতে অবস্থিত হনুমান ধোকা দরবার ১৯৭৯ সালে ইউনেস্কোর বিশ্ব
বিস্তারিত
কবিতা
কাজী জহিরুল ইসলাম গৃহগল্প দাঁড়াবার জন্য কিছুটা সময় নেয় এরপর টুপ
বিস্তারিত
গণসমুদ্রচোখ আমাকে পাহারা দেয়
দাগহীন আত্মসমর্পণ, গোটা থানকুনি বাঁক তা দিচ্ছে। ধুলোর গায়ে-বেদনায়, প্রয়াণে;
বিস্তারিত
পথিক
তোমার বাস কোথায় গো পথিক, দেশে না বিদেশে আমি তোমায়
বিস্তারিত
নদী এবং নদীরা
হ্যাঁ, মেয়েটির নাম ছিলÑ নদী! পারভীন জাহান নদী। হয়তো আরও
বিস্তারিত