প্রাণীবন্ধু গাসসান রিফায়ি

টানা ৩০ বছর বাইতুল মুকাদ্দাস চত্বরের বিড়াল ও পাখিদের খাবার দিয়ে আসছেন ফিলিস্তিনি বৃদ্ধ গাসসান রিফায়ি। স্থানীয় লোকদের কাছে তিনি রাসুলের (সা.) প্রিয় সাহাবি আবু হুরাইরা নামে পরিচিতি পেয়েছেন, যার অর্থ বিড়ালছানার বাবা।
মসজিদুল আকসা প্রাঙ্গণে গাসসান রিফায়ি প্রবেশ করলেই মসজিদ চত্বরে থাকা সব বিড়াল ও পাখি তার কাছে ছুটে আসে। সপ্তাহে তিনি চারবার আর’আরা গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে এ মসজিদে এসে বিড়াল ও পাখিদের খাবার খাওয়ান।
মসজিদুল আকসা চত্বরের বিড়ালগুলোকে খাওয়ানো প্রসঙ্গে গাসসান রিফায়ি বলেন, ‘রাসুল (সা.) আমাদের বলেছেনÑ বিড়ালের ওপর সদয় হতে। কেননা তারা ভবঘুরে অবস্থায় জীবনযাপন করে। সুতরাং রাসুল (সা.) যখন আমাদের আদেশ দিয়েছেন, তখন আমরা কেন তাদের খাবার দেব না?’ তিনি আরও জানান, যখন নিজের গাড়ি ছিল, প্রতিদিন এসে খাবার দিতেন। দুর্ঘটনায় গাড়িটি নষ্ট হয়ে যাওয়ার পর এখন বাসে করে আসেন, যা সময়সাপেক্ষ ও কষ্টকর। শুধু মসজিদ চত্বরের বিড়াল ও পাখিই নয়, মসজিদে এসে তার সঙ্গে সাক্ষাৎ করা প্রতিটি মানুষকে বৃদ্ধ গাসসান রিফায়ি কিছু না কিছু উপহার দেন। মসজিদে থাকাকালীন সময়ে শিশুদের উপহার দেওয়ার জন্য সবসময় তার ব্যাগে চকলেট, ক্যান্ডি এবং খেলনা প্রস্তুত রাখেন।

সূত্র : এবাউট ইসলাম ডটনেট


বিবাহের জন্য মেয়ে দেখতে গেলে
বিবাহ করতে প্রত্যেক পুরুষকেই মেয়ে পছন্দ করা আবশ্যক। যার কারণে
বিস্তারিত
সদকাতুল ফিতরের বিধান
আল্লাহ তায়ালার পক্ষ থেকে যেসব দান প্রদান করা বান্দার ওপর
বিস্তারিত
আজকের তারাবি ২১
দৈনিক আলোকিত বাংলাদেশের ইসলাম পাতায় ‘আজকের তারাবি’ শিরোনামে প্রতিদিন তারাবি
বিস্তারিত
‘বদর যুদ্ধের চেতনা মুসলিম জাতিসত্তার
ইসলামের সূচনালগ্নে আত্মনিবেদনের যে উজ্জ্বল অনুশীলন বদরের প্রান্তরে সাহাবায়ে কেরাম
বিস্তারিত
রমজানে জীবনযাপন : বিধিনিয়মের জীবনঘনিষ্ঠ
‘রমজানবিষয়ক গ্রন্থ রচনা করা অসম্ভব, বেশি হলে সংকলন করা যেতে
বিস্তারিত
মাসআলা
রোজা ও নামাজ ফরজ হওয়ার জন্য বয়স মুখ্য নয়, বালেগ
বিস্তারিত