গণমাধ্যম সম্পাদকদের সহযোগিতা চেয়েছে ঐক্যফ্রন্ট

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন ‍অবাধ, সুষ্ঠু ও অংশগ্রহণমূলক করতে গণমাধ্যম সম্পাদকদের সহযোগিতা চেয়েছে ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বাধীন জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট।

শুক্রবার (১৬ নভেম্বর) বিকেলে বিভিন্ন গণমাধ্যমের সম্পাদক ও জ্যেষ্ঠ সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়ের পর ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেন সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।

ড. কামাল বলেন, ‘দুই ঘণ্টা ধরে আমরা সম্পাদকদের সঙ্গে মতবিনিময় করেছি। তারা বিভিন্ন বিষয়ে মতামত দিয়েছেন, আমাদেরও দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেছেন, সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য তাদের কাছ থেকে আমরা কী আশা করি।’

নির্বাচন সামনে রেখে গত ১৩ অক্টোবর গঠিত সরকারবিরোধী এই মোর্চায় কামাল হোসেনের গণফোরামের সঙ্গে আছে বিএনপি, জেএসডি, কৃষক শ্রমিক জনতা  লীগ, গণফোরাম, নাগরিক ঐক্য ও জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়া। এর আগে গত ১৮ অক্টোবর কূটনীতিকদের সঙ্গে মতবিনিময়ের পর আজ তারা গণমাধ্যমের সম্পাদকদের সঙ্গে বসলেন।

ড. কামাল হোসেন বলেন, এই মতবিনিময় খুবই মূল্যবান বলে মনে করি। সরকারের যেসব জিনিস আমরা চিহ্নিত করেছি, আমরা আশা করব এসব ব্যাপারে সংবাদমাধ্যম সজাগ দৃষ্টি রাখবে।

সম্পাদকদের কাছে কী ধরনের সহযোগিতা চাওয়া হয়েছে প্রশ্ন করা হলে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য আমরা সব ধরনের সহযোগিতা চেয়েছি।

মতবিনিময় সভা শেষ হওয়ার আগেই বেরিয়ে এসে ‘আমাদের নতুন সময়’এর সম্পাদক নাইমুল ইসলাম খান বাইরে অপেক্ষায় থাকা সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমি তাদের জিজ্ঞাসা করেছি সাম্প্রতিক সময়ে ঐক্যফ্রন্টের জনসভাগুলো কোরআন তেলাওয়াত, বাইবেল, গীতা ও ত্রিপিটক পাঠের মাধ্যমে শুরু হয়েছে। সেখানে বঙ্গবন্ধু, বাংলাদেশের স্বাধীনতা এবং মুক্তিযুদ্ধের বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। এগুলো তাদের ঐক্যবদ্ধ চিন্তার ফল কিনা? এ বিষয়গুলো নিয়ে তাদের ঐক্যবদ্ধ অবস্থান নির্বাচনের আগে তারা আমাদের সামনে তুলে ধরবেন কিনা।’

‘আমি জানতে চেয়েছি নির্বাচনের পর বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী ও বঙ্গবন্ধুর শততম জন্মবার্ষিকীর যে উৎসব হবে, তারা জয়ী বা পরাজিত হলে তা কীভাবে পালন করবেন। এসব প্রশ্নের নোট তারা নিয়েছেন, বলেছেন পরে উত্তর দেবেন।’

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের প্রধান সম্পাদক তৌফিক ইমরোজ খালিদী সাংবাদিকদের বলেন, আমি মতবিনিময় সভায় প্রশ্ন করেছি, ফ্রন্ট যদি জয়লাভ করে তাহলে প্রধানমন্ত্রী কে হবেন। সেই প্রশ্নের উত্তর আমি পাইনি।

তিনি বলেন, আমার মনে হয়, এই ফ্রন্টের যারা নির্বাচন করছে, তাদের বলতে হবে যে, সম্ভাব্য ক্ষেত্রে তারা যদি বিজয়ী হন, কে প্রধানমন্ত্রী হবেন। সেটা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ, সংসদীয় নির্বাচনের ক্ষেত্রে, সংসদীয় গণতন্ত্রের ক্ষেত্রে।

গুলশানের হোটেল লেকশোরে এই মতবিনিময় সভার শুরুতে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সম্পাদকদের স্বাগত জানিয়ে জাতীয় যুক্তফ্রন্টের নেতৃবৃন্দকে পরিচয় করিয়ে দেন। এরপর ফ্রন্টের নেতা ড. কামাল হোসেন বক্তব্য দেন।

মতবিনিময় সভায় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে অংশ নেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যরিস্টার মওদুদ আহমদ, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জেএসডি) সভাপতি আসম আবদুর রব, গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসিন মন্টু, নাগরিক ঐক্যের মাহমুদুর রহমান মান্না, জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার সুলতান মো. মনসুর আহমেদ, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি জাফরুল্লাহ চৌধুরী প্রমুখ।

অন্যদিকে, সম্পাদকদের মধ্যে ছিলেন প্রথম আলো সম্পাদক মতিউর রহমান, নিউজ টুডের সম্পাদক রিয়াজ উদ্দিন আহমেদ, হলিডে সম্পাদক সৈয়দ কামালউদ্দিন, মানবজমিনের প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী, নিউএজ সম্পাদক নুরুল কবীর, আমাদের নতুন সময়ের সম্পাদক নাইমুল ইসলাম খান, বিডিনিউজের প্রধান সম্পাদক তৌফিক ইমরোজ খালিদী, ঢাকা ট্রিবিউনের সম্পাদক জাফর সোবহান, দিনকাল সম্পাদক রেজোয়ান সিদ্দিকী, সাপ্তাহিক বুধবার সম্পাদক আমির খসরু, সাপ্তাহিক সম্পাদক গোলাম মোর্তজা প্রমুখ।

এছাড়া সিনিয়র সাংবাদিকদের মধ্যে এএফপি ব্যুরো প্রধান শফিকুল আলম, রয়টার্সের ব্যুরো প্রধান সিরাজুল ইসলাম কাদির, ইনকিলাবের সহকারী সম্পাদক মুন্সি আব্দুল মান্নান, বাংলাদেশের খবরের ব্যবস্থাপনা সম্পাদক সৈয়দ মেজবাহ উদ্দিন, সমকালের প্রধান প্রতিবেদক লোটন একরাম প্রমুখ মতবিনিময় অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন।


‘বিজয়ের মাসে বিজয় উপভোগ করবে
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ বেশির ভাগ আসনে বিজয়ী
বিস্তারিত
আন্দালিব পার্থর ফেসবুক আইডি হ্যাকড
বাংলাদেশ জাতীয় পার্টির (বিজেপি) চেয়ারম্যান আন্দালিব রহমান পার্থর ফেসবুক আইডি
বিস্তারিত
বিচারপতির প্রতি খালেদার আইনজীবীর অনাস্থা
নির্বাচনে প্রার্থিতা ফিরে পেতে খালেদা জিয়ার তিনটি রিট আবেদনের শুনানি
বিস্তারিত
‘পরিবর্তন আনতে হলে ভোট দিতে
পরিবর্তন আনতে হলে ধানের শীষে ভোট দিতে হবে বলে মনে
বিস্তারিত
‘টিকে থাকার জন্য শেষ মরণকামড়
টিকে থাকার জন্য সরকার শেষ মরণকামড় দিচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন
বিস্তারিত
আওয়ামী লীগকে ৬৬ শতাংশ মানুষের
আওয়ামী লীগের প্রতি সমর্থন ৬৬ শতাংশ মানুষের এবং বিএনপির প্রতি
বিস্তারিত