সম্মোহন

তুমি স্থির হয়ে দাঁড়িয়ে আছো
তবুও তোমার ছায়া থরথর করে কাঁপছে।
এ দৃশ্য দেখতে দেখতে আমার নিজের ছায়া বিলীন...
সেই থেকে আমি শত আলোর মাঝেও ছায়াহীন মানব।

পৃথিবীর বাতাসে ভূমিষ্ঠ শিশুর প্রথম নিঃশ্বাসের আনন্দের মতোÑ
একদিন সূর্য উঠলÑ প্রভাতের সূর্য।
আমি জাতিস্মর শিশু হয়ে সূর্যের ছায়া অনুসন্ধান করেছিÑ
না, কোথাও সূর্যের ছায়ার সন্ধান মেলেনি।
তাই আমার ছায়াহীন দুঃখ, এই ভেবে লাঘব করিÑ
সূর্যোদয় ও সূর্যাস্তের মেঘ একই রঙে রঙিন
যেন মায়ের কপালের সিঁদুরÑ আনন্দময়।

জীবনের কিছুকথা যখন পবিত্র হয়ে যায়
সেইসব কথার গন্ধ শুঁকে আমরা কি বলতে পারিÑ
মাতৃগর্ভের স্মৃতি কেমন ছিল?


নিস্তব্ধ অন্তরে
তুমি আছো নিস্তব্ধ অন্তরে আমার অন্তরের দেবালোকে। পাইনি বলে আজও
বিস্তারিত
মধ্য রাতের ইচ্ছে
বৈশাখের মধ্যরাতে আমি অপেক্ষা করছিলাম কোনো এক সম্পূর্ণ কবির জন্য দু’হাত
বিস্তারিত
চিঠি
ঢাকা শহর এক আশ্চার্য শহর বটে পাহাড় নেই, শাল মহুয়া
বিস্তারিত
বিমিশ্র প্রচ্ছদে সমুদ্র রূপ
পাহাড় মুখ অবলোকন আসা যাওয়ার স্বরচিত সমুদ্র পথে পারাপার যান
বিস্তারিত
সুতোয় বেঁধো না
তোমার হস্তের নাটাই সুতোয় বেঁধো না আমায়  প্রিয়তম আমাকে সুতোকাটা
বিস্তারিত
নমস্য দীর্ঘশ্বাস
নমস্য দীর্ঘশ্বাস, তোমাকে পুনরায় নমস্কার ঘোলা চাঁদ পা-ুরতায় তোমার এমন
বিস্তারিত