নাগরীলিপি নবজীবনের জার্নাল

প্রাচীন প্রাগজ্যোতিষপুর বা কামরূপ রাজ্য, হরিকেল রাজ্য হয়ে যে প্রাচীন শ্রীহট্ট; সেখানেই ভাষালিপির এক বিস্ময়কর ঘটনা ঘটে চতুর্দশ শতকে। পৃথিবীতে প্রচলিত কয়েক হাজার ভাষার যেখানে নিজস্ব লিপিই নেই, সেখানে একটি ভাষার একাধিক লিপির যে প্রবর্তন বাংলাদেশের সিলেটে হয়; ভাষা-লিপির ইতিহাসে এটি এক বিরল অধ্যায়। বাংলালিপির পাশাপাশি সিলেটি নাগরীলিপি পাঁচশ বছর দাপটের সঙ্গে টিকে ছিল বঙ্গের উত্তর-পূর্বাঞ্চলজুড়ে। এ লিপির সাহিত্যভা-ার নেহায়ত ছোট নয়। নাগরীলিপিতে লিখেছেন সৈয়দ শাহনূর, দীন ভবানন্দ, আরকুম শাহ, শিতালং ফকির, মমিন উদ্দিন দৈখুরা, শেখ ভানুসহ কয়েকজন মরমি গীতিকবি। তাদের গান বাংলার মরমিগানের ভুবনে অবিনশ্বর। এরা সবাই লিখেছেন সিলেটি নাগরীলিপিতে, বাংলা লিপিতে নয়। এ সিলেটি নাগরীলিপি ও সাহিত্যজগতের এক অনুপুঙ্খ বিবরণী ‘নাগরীলিপি : নবজীবনের জার্নাল’ বই। বইটিতে লেখক নাগরীলিপি পুনরুজ্জীবনে তার ভূমিকা ও এ লিপিকেন্দ্রিক তার কর্মকা-ের কথা সরল ও প্রাঞ্জল ভাষায় উপস্থাপন করেছেন। বইটির পরতে পরতে ছড়িয়ে রয়েছে নাগরীলিপির চর্চাকারী ব্যক্তি থেকে শুরু করে এ লিপির পুনরুজ্জীবনের ক্ষেত্রে ভূমিকা রাখা মানুষদের কথা। লেখক স্বাদু গদ্যে হারিয়ে যাওয়া নাগরীলিপির যে বয়ান দিয়েছেন, তা পাঠে পাঠকরা এক নতুন ভুবনের সন্ধান পাবেন। হ

হগাজী মুনছুর আজিজ


পাথরের ফাঁক-ফোকর দিয়েই
  বিজয়ী ঝকঝকে চোখগুলো এখন তন্দ্রা আর ঝিমুনিতে ঝাপসা।
বিস্তারিত
বিজয়ের তানপুরা
  হাসপাতালের করিডোর ছেড়ে রাস্তায় নামলেন ডাক্তারেরা তড়িঘড়ি তাদের উচ্চারণÑ
বিস্তারিত
রোদ
  রোদ ছিল ব’লে শয্যাপ্রান্তে উম ছিল ঘোর ছিল, ঘুম
বিস্তারিত
অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রায় বাংলাদেশ
  বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতাঃ গৌরব আর সৌরভে সম্ভার, মুক্তিযোদ্ধারা;
বিস্তারিত
কোটি স্বপ্নের একটি নাম
  এসেছিল মাঠের কিষান, কিষানি বধূ ফসলের শিল্প গড়া, চাষিরা, 
বিস্তারিত
স্বপ্নসিক্ত ম্যুরাল
  তুমি থাকলে শস্যবীজ পুষ্ট হয় নদীস্রোত কুলুকুলু বহে, ফুল
বিস্তারিত