অভিশাপ

অভিশাপে কপালের আধখান শেষ।
ভাগ্যরা আর পাশে নেই।
উড়ে গেছে অজানা প্রান্তে।
আমি মায়ের কাছে অচল গ্রহের মতো পড়ে আছি।
বিশাল সাগরের অতল তীরে ডুবে যাচ্ছে স্বপ্নের তরী।
হতাশার দেওয়াল কীভাবে পার হবো!
সেই ভাবনার গ্রাস করে মস্তিষ্ক।
ঘরে অভাব থাকলে কোলের শিশুকেও বেকার ভাবে পিতা।
বেকার জীবনের অবসান যদি হয়!
সেই বাসনায় মসজিদে প্রার্থনা করি।
সিজদায় আবেদন পাঠায়। আল্লাহর অথর্ব বান্দা।
কবুল করবে কি না অজানা।
স্বপ্নের আড়ালে সফলতার হাসি দেখে আমি আর ক্রন্দন করি না
পিপাসিত পাপিয়ার মতো।
ধর্যের পাখনা বেড়েছে সঙ্গে স্বপ্নেরও।
এখন আকাশের দ্বার প্রান্তে উড়ে বেড়ায় স্বপ্নের সন্ধানে।


নিস্তব্ধ অন্তরে
তুমি আছো নিস্তব্ধ অন্তরে আমার অন্তরের দেবালোকে। পাইনি বলে আজও
বিস্তারিত
মধ্য রাতের ইচ্ছে
বৈশাখের মধ্যরাতে আমি অপেক্ষা করছিলাম কোনো এক সম্পূর্ণ কবির জন্য দু’হাত
বিস্তারিত
চিঠি
ঢাকা শহর এক আশ্চার্য শহর বটে পাহাড় নেই, শাল মহুয়া
বিস্তারিত
বিমিশ্র প্রচ্ছদে সমুদ্র রূপ
পাহাড় মুখ অবলোকন আসা যাওয়ার স্বরচিত সমুদ্র পথে পারাপার যান
বিস্তারিত
সুতোয় বেঁধো না
তোমার হস্তের নাটাই সুতোয় বেঁধো না আমায়  প্রিয়তম আমাকে সুতোকাটা
বিস্তারিত
নমস্য দীর্ঘশ্বাস
নমস্য দীর্ঘশ্বাস, তোমাকে পুনরায় নমস্কার ঘোলা চাঁদ পা-ুরতায় তোমার এমন
বিস্তারিত