হুয়াওয়ে ওয়াই নাইন ২০১৯

বর্তমান সময়টিকে চাইলেই অনায়াসে তথ্যপ্রযুক্তির পাশাপাশি স্মার্টফোনের যুগও বলা যায়। কারণ, প্রায় প্রতিদিনই স্মার্টফোনে যুক্ত হচ্ছে নিত্যনতুন ফিচার অথবা বাজারে উন্মুক্ত হয় নিত্যনতুন প্রযুক্তির স্মার্টফোন। আর তাই স্মার্টফোনের বাজার ধরতেও মরিয়া মোবাইল নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলো। হয়তো সে কারণে আপগ্রেডেড সব প্রযুক্তি দিয়ে কে কত কম দামে গ্রাহকের হাতে ফোন তুলে দিতে পারে সে প্রচেষ্টা করে কোম্পানিগুলো। আর এ সুযোগটিকে কাজে লাগিয়ে সাধ্যের মধ্যে প্রযুক্তি দুনিয়ায় নিজেকে আপগ্রেড রাখতে নতুন প্রযুক্তির ফোন লুফে নেন গ্রাহকরা। ২২ হাজার ৯৯০ টাকার এ ফোনটিতে থাকছে নচসহ ৬.৫ ইঞ্চি ফুলভিউ ডিসপ্লে, চার জিবি র‌্যামের সঙ্গে আছে ৬৪ জিবি রম, দীর্ঘস্থায়ী ব্যাটারি সুবিধা। থ্রিডি কার্ভড বা বাঁকানো ডিজাইনের বডির মোবাইলটিতে আছে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাবিশিষ্ট চার ক্যামেরা। ফোনটির পেছনে ১৩ ও ২ মেগাপিক্সেলের ডুয়েল রিয়ার ক্যামেরা এবং সামনে ১৬ ও ২ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা রয়েছে। এতসব ফিচার সমৃদ্ধ ফোনটির নাম জানতে নিশ্চয়ই মন আনচান করছে? এ ফোনটি হচ্ছে স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ের ওয়াই সিরিজের ফোনগুলোর মধ্যে জনপ্রিয়তায় শীর্ষে থাকা ওয়াই নাইনের দ্বিতীয় ভার্সন ওয়াই নাইন (২০১৯)। 
হুয়াওয়ে ওয়াই নাইন ২০১৯ মডেলের হ্যান্ডসেটটির ডিজাইন খুবই সাধারণ, তবে আকৃষ্ট করার মতো। থ্রিডি কার্ভড বা বাঁকানো ডিজাইনের বডির ডিভাইসটির বেজেল খুবই সংকীর্ণ। তবে হ্যান্ডসেটটির বডি সিøম এবং এর ওজন ১৭৩ গ্রাম। 
হ্যান্ডসেটটির পেছনে প্রাইমারি ক্যামেরা ১৩ মেগাপিক্সেল এবং সেকেন্ডারি ক্যামেরাটি ২ মেগাপিক্সেলের। ক্যামেরার প্রো মুড ব্যবহার করে নিজের ইচ্ছে মতো ক্যামেরাকে কন্ট্রোল করা যায়। পোর্টেট মুডে ছবি তোলার অপশনও আছে এটিতে। এই ক্যামেরা ব্যবহার করে ফুল এইচডি ভিডিও করার সুযোগও রেখেছে প্রতিষ্ঠানটি। অন্যদিকে সেলফি ক্যামেরার একটি ১৬ মেগাপিক্সেল এবং সেকেন্ডারিটি দুই মেগাপিক্সেলের। এ ছাড়া এই হ্যান্ডসেটটিতে মুভিং পিকচার নামের একটি ফিচার যুক্ত করেছে হুয়াওয়ে। এই ফিচারটি অন করে সাবজেক্ট কিংবা ক্যামেরার অবস্থান পরিবর্তনের সময় ছবি তোলা সম্ভব। যেটা পরবর্তীতে অ্যানিমেটেড পিকচারের ফিল দেয়।
ডিভাইসটিতে ব্যবহূত ফেস আনলক পদ্ধতি বেশ চমকে দেওয়ার মতো। অল্প আলোতেও চেহারা ঠিকই চিনে নিতে সক্ষম এই সেন্সর। এ ছাড়া পিন ও স্ক্রিন আনলক পদ্ধতি তো রয়েছেই। এই ডিভাইসটির ফিচারের মধ্যে অন্যতম একটি হচ্ছে সোশ্যাল অ্যাপ ক্লোন যা দিয়ে আপনি চাইলেই আপনার সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাপ যেমন ফেসবুক, মেসেঞ্জারগুলোর দুটি অ্যাপ মানে এক ডিভাইসে একই সঙ্গে দুটি অ্যাকাউন্ট পরিচালনা করা যাবে। এ ছাড়া ডিভাইসটিতে থাকা পার্টি মুড নামের অ্যাপসটির ফিচারও অনেকটা ভালো লাগার মতো, যা ব্যবহার করে একই সঙ্গে সাতটি হ্যান্ডসেট যুক্ত করে গান শোনা সম্ভব। আরো আছে ডুয়াল ব্যান্ড ওয়াইফাই, ব্লু-টুথ ৫.০, মাইক্রো ইউএসবি ২.০। সেন্সরের মধ্যে এই ফোনটিতে আছে এক্সেলেরো মিটার সেন্সর, হিউমিডিটি সেন্সর, গ্র্যাভিটি সেন্সর, লাইট সেন্সর, ম্যাগনেটিক ফিল্ড সেন্সর, স্টেপ ডিটেক্টর সেন্সর, প্রেসার সেন্সর, প্রক্সিমিটি সেন্সরসহ আরও কিছু সেন্সর। ডিভাইসটিতে ৪ হাজার মিলি-অ্যাম্পিয়ার আওয়ারের (এমএইচ) শক্তিশালী ব্যাটারি দেওয়া হয়েছে, যা দিয়ে টানা ৯ ঘণ্টা ভিডিও দেখা বা গেম খেলা কিংবা টানা ৬৫ ঘণ্টা গান শোনা অথবা ফোরজি নেটওয়ার্কে ১৪ ঘণ্টা ওয়েব ব্রাউজিং সম্ভব। মিডনাইট ব্ল্যাক, সাফায়ার ব্লু এবং অরোরা পার্পেল; এ তিনটি রঙের ডিভাইসটি দেশের সব হুয়াওয়ে স্টোরে পাওয়া যাবে। 


প্রযুক্তিতে একসঙ্গে কাজের আহ্বান
প্রযুক্তিতে উন্নত ও অনুন্নত সব দেশকে একসঙ্গে কাজ করতে আহ্বান
বিস্তারিত
বাংলা নববর্ষে ডুডলে রয়েল বেঙ্গল
পহেলা বৈশাখের দিন বিশেষ ডুডলের মাধ্যমে ব্যবহারকারীদের শুভেচ্ছা জানিয়েছে সার্চ
বিস্তারিত
আউটলুক হ্যাকের কথা জানাল মাইক্রোসফট
মাইক্রোসফট ১৪ এপ্রিল সকালে জানিয়েছে, আউটলুক ডটকম অ্যাকাউন্টে এক হ্যাকার
বিস্তারিত
ওয়াইপো বাংলাদেশে মেধাস্বত্ব একাডেমি স্থাপনে
বাংলাদেশে মেধাস্বত্ব একাডেমি স্থাপনে সহযোগিতা করবে ওয়ার্ল্ড ইন্টেলেকচুয়াল প্রোপার্টি অর্গানাইজেশন
বিস্তারিত
উইন্টার ইজ কামিং গেইম
বিশ্বজুড়ে গেইম আকারে ইংরেজি সংস্করণে মুক্তি পেয়েছে ‘গেইম অব  থ্রোনস
বিস্তারিত
অ্যাপের মাধ্যমে লক স্ক্রিনেও কাজ
নিরাপত্তার খাতিরে স্মার্টফোন লক করে রাখার দরকার হয়। এতে যেমন
বিস্তারিত