২০৪১-এর উদ্ভাবনী বাংলাদেশ বাস্তবায়নে

‘আমার গ্রাম-আমার শহর’ ও ‘তারুণ্যের শক্তি’ বিষয়ক কর্মশালা

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ এবং তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি বিভাগের সহযোগিতায় এটুআই-ইনোভেট ফর অল-এর উদ্যোগে ‘উদ্ভাবনী বাংলাদেশ : আমার গ্রাম, আমার শহর ও তারুণ্যের শক্তি’ বিষয়ক একটি কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) মিলনায়তনে আয়োজিত কর্মশালার দ্বিতীয় অধিবেশনে উপস্থিত ছিলেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এসডিজিবিষয়ক মুখ্য সমন্বয়ক মো. আবুল কালাম আজাদ, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিব (সমন্বয় ও সংস্কার) এনএম জিয়াউল আলম, তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি বিভাগের সচিব জুয়েনা আজিজ, এটুআইয়ের প্রকল্প পরিচালক ও অতিরিক্ত সচিব মো. মোস্তাফিজুর রহমান, পিএএ; আন্তর্জাতিক কৃষি মিডিয়া ব্যক্তিত্ব শাইখ সিরাজ এবং ন্যাশনাল অ্যাসোসিয়েশন অব স্মল অ্যান্ড কটেজ ইন্ডাস্ট্রিজ অব বাংলাদেশের (এনএএসসিআইবি) সভাপতি মির্জা নুরুল গনি শোভন (সিআইপি)। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন এটুআইয়ের পলিসি অ্যাডভাইজার আনীর চৌধুরী। তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা অনুযায়ী প্রতিশ্রুতি পূরণ করতে দেশের প্রতিটি গ্রামে শহরের সব নাগরিক সেবা ও সুবিধা পেঁৗঁছে দেওয়া হবে। নাগরিক সেবা পৌঁছে দিতে দ্রুতগতির ইন্টারনেট প্রদান করে তরুণদের তথ্যপ্রযুক্তিতে প্রশিক্ষিত করে দক্ষ জনসম্পদে পরিণত করা হবে। তিনি উল্লেখ করেন, ২০১৯ সালের মধ্যে দেশের সব ইউনিয়ন ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সংযোগের আওতায় আসবে। তিনি আরও বলেন, আগামী তিন মাসের মধ্যে দেশের ৫৪৭টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বিনামূল্যে ওয়াইফাই সংযোগ প্রদান করা হবে। মো. আবুল কালাম আজাদ বলেন, প্রাইভেট সেক্টরকে সঙ্গে নিয়ে উদ্যোক্তা তৈরির কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়েছে। তিনি বলেন, গ্রামে শহরের নাগরিক সুযোগসুবিধা বৃদ্ধির মাধ্যমে এসডিজি লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে এগিয়ে যাবে বাংলাদেশ। এনএম জিয়াউল আলম বলেন, পেপারলেস না হলেও এরই মধ্যে সফলভাবে লেস (কম) পেপার ব্যবহার করে সরকারি সেবা প্রদান সম্পন্ন করা হচ্ছে। তিনি বলেন, আমাদের সফলতা হচ্ছে প্রতিটি সরকারি অফিসেই এখন ই-নথি চালু হয়েছে। শাইখ সিরাজ বলেন, প্রযুক্তির দেশে কৃষিকে এগিয়ে নেওয়ার মতো যথেষ্ট সুযোগ রয়েছে। তিনি জমির মালিকানা অনুযায়ী আবাসনকে ক্লাস্টারে আনার বিষয়ে পরামর্শ প্রদান করেন। তিনি বলেন, প্রাকৃতিক দুর্যোগের ক্ষয়ক্ষতির কারণে কৃষককে পিছিয়ে পড়ার বিষয়টিকে মাথায় রেখে তাদের জন্য টেকসই উন্নয়ন ব্যবস্থা তৈরি করা প্রয়োজন। মির্জা নুরুল গনি শোভন (সিআইপি) বলেন, প্রাইভেট সেক্টরকে সঙ্গে নিয়ে কৃষিভিত্তিক অর্থনীতি তৈরি করা যেতে পারে। এছাড়া একটি বাড়ি একটি শিল্প বাস্তবায়নের মাধ্যমে আত্মকর্মসংস্থান তৈরি করার সুযোগ রয়েছে। উল্লেখ্য, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ, তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি বিভাগ, ইউএনডিপি এবং ইউএসএআইডিয়ের সহায়তায় এটুআই ২০৪১ সালের মধ্যে উদ্ভাবনী বাংলাদেশ গড়ে তোলার ভিশন অর্জন কার্যক্রম শুরু করেছে। প্রথম অধিবেশনে সরকারি ও বেসরকারি বিভিন্ন সেক্টরের বিশেষজ্ঞদের সমন্বয়ে ২০২৩ সালের মধ্যে ‘আমার গ্রাম, আমার শহর ও তারুণ্যের শক্তি’ কার্যক্রম সফলভাবে সম্পন্ন করার প্রাথমিক রূপরেখার খসড়া প্রণয়ন করা হয়েছে। রূপরেখার আলোকে কৃষি, স্বাস্থ্য, শিক্ষা, শিল্প, দক্ষতা ও কর্মসংস্থান, পরিবহন, প্রযুক্তি সংযোগ, ই-কমার্স ও প্রাইভেট সার্ভিস, পেপারলেস অফিস ও সরকারি সেবা এবং জঙ্গিবাদ নির্মূল ও মাদকমুক্ত সমাজ বিষয়ে ভবিষ্যৎ সম্ভাবনা ও করণীয় সচিত্র উপস্থাপন করা হয়। দ্বিতীয় অধিবেশনে বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের টিওটি প্রাপ্ত এসডিজি ফোকাল পারসনসহ বিভাগ, অধিদপ্তর, দপ্তর এবং বিভিন্ন উন্নয়ন সংস্থার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। 


ডিজিটাল ডিভাইস অ্যান্ড ইনোভেশন এক্সপো
রাজধানী ঢাকায় অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ‘ডিজিটাল ডিভাইস এবং ইনোভেশন এক্সপো-২০১৯’।
বিস্তারিত
অনলাইন ফিন্যান্স অলিম্পিয়াডে পুরস্কার পেলেন
অনলাইন ফিন্যান্স অলিম্পিয়াডে পুরস্কার পেয়েছেন ৬ শিক্ষার্থী। শুক্রবার কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন
বিস্তারিত
বিশ্বের সবচেয়ে পাতলা লেন্স তৈরি বাংলাদেশি
স্মার্টফোনের জন্য চুলের চেয়ে হাজার গুণ পাতলা ক্যামেরা লেন্স তৈরি
বিস্তারিত
১৬তম আইজেএসওর জন্য বাংলাদেশ দল
বিজ্ঞান শিক্ষায় শিক্ষার্থীদের আগ্রহী এবং বিজ্ঞানমনষ্ক করে গড়ে তোলার লক্ষ্যে
বিস্তারিত
জাকারবার্গের পোস্টে বাংলাদেশের বিজ্ঞানীদের সাফল্যের
বাংলাদেশের বিজ্ঞানীদের এক আবিষ্কারের খবর জানিয়েছেন ফেইসবুকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা
বিস্তারিত
গুগলের ২১তম জন্মদিন
বিশ্বের বৃহত্তম ইন্টারনেট প্রতিষ্ঠান গুগলের জন্ম হয়েছিল ২১ বছর আগে
বিস্তারিত