বাজেটে অনলাইন ব্যবসায় করমুক্তি সুবিধা চেয়েছে ই-ক্যাব

জাতীয় ডিজিটাল কমার্স নীতিমালা ২০১৮ কার্যকরে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় প্রকাশিত গেজেট দেশের ব্যবসায়ের ডিজিটাল রূপান্তরকে আরও একধাপ এগিয়ে নেওয়ার পাশাপাশি ই-কমার্স শিল্প প্রতিষ্ঠায় ‘মাইলফলক’ বলে মূল্যায়ন করেছে ই-কমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ই-ক্যাব)। সোমবার জাতীয় প্রেসক্লাবে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে গেজেট পর্যালোচনাসহ ই-কমার্স খাতের জন্য বাজেট প্রস্তাবনায় আরও বলা হয়, গেজেটে যেমনি নীতিমালা বাস্তবায়নে কর্মপরিকল্পনা সুস্পষ্ট করে বলা হয়েছে, তেমনি আগামী বাজেটেও ই-কমার্স ব্যবসায়ের প্রসারের স্বার্থে ই-বাণিজ্যে অনলাইনেই পণ্য বা সেবা মূল্য পরিশোধের ক্ষেত্রে করমুক্তি সুবিধা প্রদানের দাবি জানানো হয়। অনলাইন কেনাকাটায় শুধু ক্যাশ অন ডেলিভারিতেই নয়, অনলাইনে মূল্য পরিশোধে করমুক্তি সুবিধা দেওয়া হলে ই-কমার্স ব্যবসায় পুরোপুরি ডিজিটালমুখী হবে বলে মন্তব্য করে ই-কমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ই-ক্যাব)। সংবাদ সম্মেলনে ই-ক্যাবের সাধারণ সম্পাদক মো. আবদুল ওয়াহেদ তমাল জানান, আসন্ন বাজেটে ই-কমার্স খাতের উন্নয়নে থোক থেকে ১ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দের দাবি ই-ক্যাবের। বিশেষ করে ই-কমার্সের লজিস্টিক ও প্রশিক্ষণে এই অর্থ কাজে লাগানো হবে। ডিজিটাল কমার্স নীতিমালায় ই-কমার্সের যে সংজ্ঞা নির্ধারণ করা হয়েছে, সেটিই আসছে বাজেটে নেওয়ার দাবি তাদের। গত দু-তিন বছর ই-কমার্স খাতের জন্য কোনো আয়কর ছিল না। আগামী ৫ বছর আয়কর মওকুফ চান তারা। এ খাতে যেন কোনো কর আরোপ না হয়। ই-কমার্স খাত গত অর্থবছরে আইটিইএস হিসেবে অন্তর্ভুক্ত ছিল না। এবার বাজেটে খাতটি যেন আইটি ও আইটিইএস হিসেবে রাখা হয় সে দাবি করছে সংগঠনটি। নতুন উদ্যোক্তা তৈরিতে ই-কমার্সে ২০২১ সালের মধ্যে এক লাখ প্রশিক্ষণ দিতে চান তারা। ই-কমার্সের প্রশিক্ষণে ভ্যাট-ট্যাক্স সহনীয় পর্যায়ে করার দাবি জানান তারা। এছাড়া বাড়ি ভাড়া ও ওয়্যার হাউসে কর মওকুফ চাওয়াসহ কিছু দাবির কথা তুলে ধরেন ই-ক্যাবের সাধারণ সম্পাদক। 

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনটির সভাপতি শমী কায়সার, যুগ্ম সম্পাদক নাসিমা আক্তার নিশা, অর্থ সম্পাদক আবদুল হক অনুসহ কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্যরা। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন বিভিন্ন ই-কমার্স কোম্পানির উদ্যোক্তারা।


রাইড শেয়ারিংয়ে ঘরে বসেই খাবার
ঢাকায় এবার খাবার ডেলিভারি সেবা নিয়ে এলো রাইড শেয়ারিং প্রতিষ্ঠান
বিস্তারিত
জাপানে আইক্যানের ইভেন্টে বাংলাদেশের ইনোভেডিয়াস
ওয়ান ওয়ার্ল্ড ওয়ান ইন্টারনেট নামে আইক্যানের চলমান ইভেন্টটিতে বাংলাদেশ থেকে
বিস্তারিত
শিশুদের জন্য সফটওয়্যার একাডেমি
দেশে ‘জুনিয়র সফটওয়্যার একাডেমি’ নামে একটি প্রতিষ্ঠান চালু করেছে স্যামসাং
বিস্তারিত
মনিটরের যত্ন নেবেন যেভাবে
দীর্ঘদিন ব্যবহারে কম্পিউটারের মনিটর নিয়ে অনেক সময় ঝামেলায় পড়তে হয়।
বিস্তারিত
জাতিসংঘের ডব্লিউএসআইএস ফোরামের চেয়ারম্যান হলো
বিশ্বব্যাপী জাতিসংঘের বহুমাত্রিক অংশীদারদের প্ল্যাটফর্ম ডব্লিউএসআইএস ফোরাম-১৯-এর চেয়ারম্যান হয়েছে বাংলাদেশ।
বিস্তারিত
হয়ে গেল শিশুদের রকেট তৈরির
বাচ্চাদের রকেট তৈরির কর্মশালার আয়োজন করেছে যৌথভাবে নাসা সায়েন্টিফিক প্রব্লেম
বিস্তারিত