খেলাধুলার মাধ্যমে আমাদের ছেলেমেয়েরা এগিয়ে যাক: প্রধানমন্ত্রী

ফাইল ছবি

বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ আন্তর্জাতিক ফুটবলের সফল আয়োজনে আনন্দিত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শনিবার ফাইনাল শেষে প্রতিযোগিতার ছয়টি দলকে অভিনন্দন জানিয়েছেন তিনি। প্রধান অতিথি হিসেবে ট্রফি তুলে দিয়েছেন চ্যাম্পিয়ন ফিলিস্তিনের খেলোয়াড়দের হাতে।

বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, ‘বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ আন্তর্জাতিক ফুটবলে অংশ নেওয়া বাংলাদেশ, ফিলিস্তিন, বুরুন্ডি, মরিশাস, শ্রীলঙ্কা ও সেশেলস দলকে আমার আন্তরিক অভিনন্দন।’

জাতির পিতা ও জাতীয় চার নেতার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে তিনি বলেছেন, ‘সুন্দর টুর্নামেন্ট হয়েছে। বাংলাদেশ সুন্দর দেশ। আশা করি, অতিথি দলগুলো আবার এই প্রতিযোগিতায় অংশ নেবে। জাতির পিতা, জাতীয় চার নেতা এবং মহান মুক্তিযুদ্ধে ৩০ লাখ শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাচ্ছি।’

বঙ্গবন্ধুর অবদানের কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, ‘জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংলাদেশকে স্বাধীন করেছিলেন। তাই আমরা এমন টুর্নামেন্ট আয়োজন করতে পারছি। আমরা চাই, খেলাধুলার মাধ্যমে দেশের মানুষ সুনাগরিক হিসেবে গড়ে উঠুক। সেই লক্ষ্যে প্রাথমিক স্কুলের মেয়েদের জন্য বঙ্গমাতা আর ছেলেদের জন্য বঙ্গবন্ধু ফুটবল টুর্নামেন্ট শুরু করেছি।’

তিনি আরও বলেছেন, ‘আমাদের সরকার সবসময় খেলাধুলাকে গুরুত্ব দেয়। আমরা চাই খেলাধুলার মাধ্যমে ছেলেমেয়েরা এগিয়ে যাক। জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকীতে আন্তর্জাতিক ফুটবল টুর্নামেন্ট আয়োজন করায় সবাইকে ধন্যবাদ জানাই। ফিলিস্তিনকে বিশেষ ধন্যবাদ জানাই। বুরুন্ডিকেও ধন্যবাদ।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, সবচেয়ে জনপ্রিয় খেলা হলো ফুটবল। এ খেলার মধ্য দিয়েই আমরা বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যাব।

টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণকারী দলগুলোর প্রতি আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ খুব সুন্দর দেশ। এ ধরনের খেলার আয়োজন যখনই হবে তখন আপনারা বাংলাদেশে আসবেন। বাংলাদেশে এসে খেলাধুলার পাশাপাশি ভ্রমণ করে সুন্দর বাংলাদেশকে দেখতে পারেন, উপভোগ করতে পারেন।


তাপস-আতিকুল শপথ নিচ্ছেন বৃহস্পতিবার
ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের নবনির্বাচিত মেয়ররা বৃহস্পতিবার (২৭
বিস্তারিত
ব্যাংক বন্ধ হলে এক লাখ
ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠানে টাকা রাখার পর সেই প্রতিষ্ঠান অবসায়ন
বিস্তারিত
পাপিয়ার অবৈধ সম্পদের অনুসন্ধান করবে
নরসিংদী জেলা যুব মহিলা লীগের বহিষ্কৃত সাধারণ সম্পাদক শামীমা নূর
বিস্তারিত
ডাকঘর সঞ্চয়ে সুদের হার আগের
ডাকঘর সঞ্চয় স্কিমের সুদের হার আগের অবস্থানে ফিরিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত
বিস্তারিত
বিশ্ববিদ্যালয়ে সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষার সিদ্ধান্ত
দেশের সব পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষার সিদ্ধান্ত বাতিল করা
বিস্তারিত
মিয়ানমারের ওপর চাপ সৃষ্টির আহ্বান
বাংলাদেশে বর্তমানে প্রায় ১১ লাখ রোহিঙ্গার বসবাস। মিয়ানমারে নির্যাতিত সে
বিস্তারিত