তাবলিগ থেকে ৯০০০ মানুষ করোনার ঝুঁকিতে

ভারতের তাবলিগ জামাতের মার্কাজ হিসেবে ব্যবহৃত দিল্লির নিজামুদ্দিন মসজিদের একটি সমাবেশ থেকে ছড়িয়ে পড়েছে করোনাভাইরাস। এ সমাবেশে যারা অংশ নিয়েছিলেন, তাদের মধ্যে সাতজন ইতিমধ্যেই এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। আশঙ্কা করা হচ্ছে, এ মসজিদ থেকে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৯ হাজার ছাড়াতে পারে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভর খবরে বলা হয়, মার্চের শুরুতে নিজামুদ্দিন মসজিদে তাবলিগ জামাতের এক বিশাল জমায়েত হয়। এতে কমপক্ষে ৭ হাজার ৬০০ জন ভারতীয় ও ১ হাজার ৩০০ জন বিদেশি অংশ নেন। আর এ জমায়েত থেকে ছড়িয়ে পড়ে করোনাভাইরাস। তাবলিগ জামাতের এ জমায়েতে অংশ নেওয়া সাতজন করোনা আক্রান্তের মৃত্যুতে চিন্তায় পড়েছে মহারাষ্ট্র প্রশাসন থেকে ভারতীয় কেন্দ্রীয় সরকার।

ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের আশঙ্কা, এই জমায়েত থেকে বহু মানুষের শরীরে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়তে পারে। ভারতের ২৪টি রাজ্য এবং ৪টি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে ওই তাবলিগ সদস্যদের খোঁজে চিরুনি অভিযান চালাচ্ছে পুলিশ।

ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছেন, করোনা সংক্রমণের আশঙ্কায় ১ হাজার ৫১ জন তাবলিগ সদস্যকে কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। ২১ জনের শরীরে ইতিমধ্যেই করোনা পজিটিভ ধরা পড়েছে এবং তাদের মধ্যে সাতজন মারাও গেছেন। তাদের আশঙ্কা, সঠিকভাবে তাবলিগের মুসল্লিদের কোয়ারেন্টিন না করা গেলে ৯ হাজারেরও বেশি আক্রান্ত হবেন।

ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দাবি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক জানিয়েছে, তাবলি গজামাতের সংস্পর্শে যারা এসেছেন তাদের চিহ্নিত করা গেছে। এ ছাড়া ১ হাজার ৩০৬ জন বিদেশিকেও কোয়ারেন্টিন করা হবে।  

গত মঙ্গলবারই তাবলিগের মার্কাজ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। তাবলিগের শীর্ষ আলেম মাওলানা সাদ, জিশান, মুফতি শেহজাদ, এম সাইফি, ইউনুস, মহম্মদ সলমন ও মহম্মদ আশরাফের বিরুদ্ধে পুলিশে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। জানা গেছে, পুলিশ নোটিশ জারির সঙ্গে সঙ্গেই মাওলানা সাদ গত ২৮ মার্চ থেকে নিখোঁজ রয়েছেন।


বায়তুল মোকাররমে ঈদের জামাতের সময়
পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে প্রতি বছরের মতো এবারও বায়তুল মোকাররম
বিস্তারিত
জুমাতুল বিদা আজ
আজ মাহে রমজানুল মোবারকের ২৮ তারিখ। আজ জুমাবার। এটাই এ
বিস্তারিত
চোখের পলকে পুলসিরাত পার করে
চলছে পবিত্র রমজান মাস। সিয়াম-সাধনার এ মাস জুড়েই রয়েছে রহমত,
বিস্তারিত
কাল পবিত্র লাইলাতুল কদর
হাজার মাসের চেয়ে শ্রেষ্ঠ রাত পবিত্র 'লাইলাতুল কদর'। মহিমান্বিত এ
বিস্তারিত
১০ বার কোরআন খতমের সওয়াব
একে একে শেষ হয়ে যাচ্ছে রহমত, মাগফিরাত আর নাজাতের দিনগুলো।
বিস্তারিত
মাগফিরাতের ১০দিন শুরু এবং আমাদের
আজ থেকেই শুরু হবে মাগফিরাতের ১০ দিন। দুনিয়ার সকল গোনাহগার
বিস্তারিত