logo
প্রকাশ: ০৬:৩২:৩৩ PM, বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ৬, ২০১৮
বাবরি মসজিদ ধ্বংসের বর্ষপূর্তি, কড়া নিরাপত্তা অযোধ্যায়
প্রসেনজিৎদাস, ভারত

৬ ডিসেম্বর। ১৯৯২ সালের পর দেখতে দেখতে কেটে গেল ২৬ বছর। ওই দিনই অযোধ্যায় বাবরি মসজিদ ধ্বংস করা হয়েছিল। তারপর থেকেই চলছে দ্বৈরথ। বিতর্কিত জমিতে রামমন্দির হবে না মসজিদ, তার উত্তর এখনও লুকিয়ে সময়ের গর্ভে। কারণ বিতর্কিত জমিটি নিয়ে মামলা এখনও বিচারাধীন সুপ্রিম কোর্টে।

তবে বাবরি মসজিদ ধ্বংসের বর্ষপূর্তিতে কোনোরকম অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে নিরাপত্তার চাদরে মুড়ে ফেলা হয়েছে অযোধ্যাকে। কোনো গণ্ডগোল যাতে না হয়, সেজন্য চারদিকে কড়া নজর রেখেছে পুলিশ প্রশাসন। পরিস্থিতি বেগতিক দেখলেই কড়া পদক্ষেপ করতে পারে পুলিশ, প্রয়োজনে কাউকে গ্রেপ্তার করতেও বাধা নেই। এমনই নির্দেশ জারি করা হয়েছে। প্রতিবছর ৬ ডিসেম্বর দিনটিকে বিশ্ব হিন্দু পরিষদ ও বজরং দল 'শৌর্য দিবস' ও 'বিজয় দিবস' হিসেবে পালন করে।

অন্যদিকে মুসলিম সম্প্রদায় দিনটিকে 'ইয়াম-ই-গম' (দুঃখের দিন) ও 'ইয়াম-ই-শ' (কালা দিবস) হিসেবে পালন করে। আর দুই সম্প্রদায়ের মানুষই যাতে তাদের অনুষ্ঠান সুষ্ঠুভাবে পালন করতে পারে সেজন্য পর্যাপ্ত নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

ফৈজাবাদের পুলিশ সুপার অনিল সিং জানিয়েছেন, ‘‌ফৈজাবাদ–অযোধ্যায় মোতায়েন করা হয়েছে প্রায় ২৫ হাজার পুলিশ। এছাড়া রয়েছে আধা সামরিক বাহিনী ও র‌্যাফ। অযোধ্যা এবং তার আশপাশের অঞ্চলে রয়েছে বহুস্তরীয় নিরাপত্তা ব্যবস্থা। হোটেল ও ধর্মশালাগুলিতেও তীক্ষ্ণ নজর রাখা হচ্ছে। এছাড়া অযোধ্যায় যেক’‌টি গাড়ি ঢুকবে, তার প্রতিটিতেই চেকিং করা হবে বলে।’‌

এদিকে, অশান্তি ছড়াতে পারে এই সন্দেহে ইতিমধ্যে আটজনকে গ্রেপ্তারও করেছে পুলিশ। বুলন্দশহরের ঘটনার পর আরও যেন সতর্ক রয়েছে প্রশাসন।

সম্পাদক ও প্রকাশক : কাজী রফিকুল আলম । সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক আলোকিত মিডিয়া লিমিটেডের পক্ষে ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫ থেকে প্রকাশিত এবং প্রাইম আর্ট প্রেস ৭০ নয়াপল্টন ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত। বার্তা, সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক বিভাগ : ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫। ফোন : ৯১১০৫৭২, ৯১১০৭০১, ৯১১০৮৫৩, ৯১২৩৭০৩, মোবাইল : ০১৭৭৮৯৪৫৯৪৩, ফ্যাক্স : ৯১২১৭৩০, E-mail : [email protected], [email protected], [email protected].com