ঢাকা ২৪ জুলাই ২০২৪, ৯ শ্রাবণ ১৪৩১ | বেটা ভার্সন

অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়তে বঙ্গবন্ধু দেশ স্বাধীন করেছিলেন

স্থানীয় সরকারমন্ত্রী
অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়তে বঙ্গবন্ধু দেশ স্বাধীন করেছিলেন

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম বলেছেন, অসাম্প্রদায়িক দেশ গড়তেই বঙ্গবন্ধু দেশ স্বাধীন করেছিলেন। তার স্বপ্ন ছিল দেশের হিন্দু-মুসলিমণ্ডবৌদ্ধ-খ্রিষ্টান সব ধর্ম-জাতির মানুষ সম্মিলিতভাবে স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণ করবে। কিন্তু পঁচাত্তরের ১৫ আগস্ট নির্মমভাবে বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে এই স্বপ্নকে ধুলিসাৎ করতে চেয়েছিল স্বাধীনতাবিরোধী চক্র। গতকাল রোববার কুমিল্লার জগন্নাথপুরে জগন্নাথ দেবের রথযাত্রা মহোৎসব উপলক্ষ্যে ধর্মসভা অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। তাজুল ইসলাম বলেন, ১৯৯৬ সালে বঙ্গবন্ধুকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় এসে জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে রূপরেখা তৈরি করেন। ২১ বছর পরে আওয়ামী লীগ সরকার গঠনের পূর্বে ধর্মে ধর্মে মানুষের মধ্যে এমন সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক কখনো দেখা যায়নি। নির্বিঘ্নে সব ধর্মের মানুষ তাদের আচার অনুষ্ঠান পালন করতে পেরেছে।

তিনি বলেন, পাকিস্তান রাষ্ট্রের জন্ম হয়েছিল ধর্মীয় বিভাজনের ভিত্তিতে। এই বিভাজন আমরা মানতে পারিনি বলে পরবর্তী সময়ে অসাম্প্রদায়িক চেতনাকে বুকে ধারণ করে দেশ স্বাধীন হয়েছে। বাংলাদেশে তাই কোনও ধর্মীয় বৈষম্য থাকবে না। মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে একটি অসাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র হিসেবে দেখতে চান। তিনি এমন একটি দেশের স্বপ্ন দেখেন যেখানে, আপনি হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান কিংবা মুসলিম যে ধর্মেরই হন না কেন, আপনার সমান অধিকার থাকবে। শুধু ধর্মীয় উৎসব পালনে নয়, রাষ্ট্রের সব নাগরিক অধিকার ভোগ করার ক্ষেত্রে সব ধর্মের মানুষ সমান অধিকার ভোগ করবে। বর্তমান সরকার ২০৪১ সালে উন্নত রাষ্ট্র গঠনে যে রূপরেখা তৈরি করেছে, তা গড়তে ধর্ম-বর্ণ জাতি নির্বিশেষে সবাইকে সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে।

আরও পড়ুন -
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত