ঢাকা ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ | বেটা ভার্সন

গর্ভাবস্থায় নারীর ৫ ভুল

গর্ভাবস্থায় নারীর ৫ ভুল

একজন নারীর জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ সময় গর্ভাবস্থা। তাই এই সময়ে প্রত্যেক হবু মায়েরই সতর্ক থাকা জরুরি। এমনকি বাড়তি সতর্কতাও অবলম্বন করতে হবে। গর্ভকালে মায়েরা যদি সামান্য কিছু ভুল করে ফেলেন, তাহলে হিতেবিপরীত হতে পারে। তাই সময় থাকতেই জেনে নিন গর্ভাবস্থায় কোন ভুলগুলো কখনোই করা চলবে না। অথচ এই ভুলগুলোই অনেক নারীই করে থাকেন।

পর্যাপ্ত খাবার খান না : গর্ভাবস্থায় অনেক নারীই গা গুলানো এবং বমি বমি ভাব হয়। আর এটা এই সময়ে বেশ স্বাভাবিক। কিন্তু এই কারণে অনেকেই ঠিকঠাক খাওয়া দাওয়া করেন না। এতে শরীরের ক্ষতি হয়। তাই গর্ভাবস্থায় কোনো মিল বাদ দেবেন না। সঠিক পরিমাণে স্বাস্থ্যকর খাবার অবশ্যই খাবেন।

ইচ্ছেমতো ওষুধ খান : গর্ভাবস্থায় শরীরে নানারকম পরিবর্তন দেখা দেয়। এমনকি টুকটাক শরীর খারাপও লেগে থাকে। তাই আপনিও যদি এমন সমস্যার মুখে পড়েন, তাহলে সেই নিয়ে চিন্তা করবেন না। আর ভুলেও নিজে থেকে কোনো ওষুধ খাবেন না। এই সময়ে সামান্য মাথাব্যথা হলেও চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে ওষুধ খাওয়াই হবে বুদ্ধিমানের কাজ।

ওজন বাড়লে চিন্তা করেন : ?প্রেগনেন্সিতে ওজন বৃদ্ধি অস্বাভাবিক নয়। কারণ এই সময়ে আপনি সব সময়ে স্বাস্থ্যকর খাবার খান এবং আনন্দে থাকেন। তাছাড়া আপনার হরমোনের মাত্রাও পরিবর্তন হয়। আর তাই ওজন বৃদ্ধি পায়। কিন্তু এই নিয়ে দুশ্চিন্তা করার কিছু নেই। এই চিন্তা স্ট্রেস বাড়ালে শরীর খারাপ হবে আপনারই। তার পাশাপাশি শিশুর গঠনেও নেতিবাচক প্রভাব পড়তে পারে।

অধিকাংশ সময়েই বিশ্রাম করেন : প্রেগনেন্ট থাকাকালীন প্রত্যেক নারীর জন্যই অতিরিক্ত হাঁটাহাঁটি করা কিংবা প্রচুর কাজ করা কষ্টকর হয়ে উঠতে পারে। তাই বলে সারা দিন এক জায়গায় চুপ করে বসে থাকাও অনর্থক। অনেকেই মনে করেন, প্রেগনেন্সিতে একদম চলাফেরা করা উচিত নয় এবং দিনের অধিকাংশ সময়ে বিশ্রাম নেওয়া উচিত। কিন্তু এটা সম্পূর্ণ ভ্রান্ত ধারণা। আপনার চিকিৎসক যদি আপনাকে সম্মতি দেন, তাহলে এই সময়ে সামান্য হালকা ব্যায়াম করা এবং নিয়ম করে হাঁটা আবশ্যক। এতে আপনি এবং আপনার সন্তান দুজনেই সুস্থ থাকবে।

অস্বাস্থ্যকর মুখরোচক খাবার খান : গর্ভবতী নারীদের অস্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়া উচিত নয়। বিশেষ করে মিষ্টি, অতিরিক্ত ঝালমশলা যুক্ত খাবার তো এড়িয়ে যেতেই হবে। তাছাড়া ধূমপান এবং অ্যালকোহল সেবন থেকেও এই সময়ে বিরত থাকতে হবে। আর হ্যাঁ, পর্যাপ্ত পরিমাণে ঘুমাতে ভুলবেন না যেন!

আরও পড়ুন -
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত