ঢাকা ২০ জুলাই ২০২৪, ৫ শ্রাবণ ১৪৩১ | বেটা ভার্সন

স্ত্রীকে জোরপূর্বক বিয়ে দেওয়ায় প্রবাসীর আত্মহত্যা

স্ত্রীকে জোরপূর্বক বিয়ে দেওয়ায় প্রবাসীর আত্মহত্যা

এলাকার কতিপয় ব্যক্তি পরকীয়ার অভিযোগ তুলে প্রবাসীর স্ত্রীকে জোরপূর্বক এক এনজিও কর্মীর সাথে বিয়ে দেওয়ার বিষয়টি মেনে নিতে না পেরে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে শাহীন হাওলাদার (৪০) নামের এক প্রবাসী। ঘটনাটি জেলার বাকেরগঞ্জ পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের ভরপাশা গ্রামের। গতকাল মঙ্গলবার সকালে থানা পুলিশ বাড়ির সামনের বাগান থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় শাহীনের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করেছেন। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বাকেরগঞ্জ পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের ভরপাশা গ্রামের হাবিব হাওলাদারের ছেলে প্রবাসী শাহীন হাওলাদার জীবিকার তাগিদে বিদেশে ছিলেন। এক সপ্তাহ পূর্বে তিনি বিদেশ থেকে ছুটিতে নিজ বাড়িতে ফেরেন। এলাকার কতিপয় ব্যক্তি প্রবাসী শাহীনের স্ত্রীর বিরুদ্ধে এক এনজিও কর্মীর সাথে পরকীয়া প্রেমের সম্পর্কে জড়ানোর অভিযোগ তোলেন। সূত্রে আরো জানা গেছে, বিদেশ থেকে দেশে এসে স্ত্রীকে অভিযোগের বিষয়ে জানতে চেয়ে সব ভুলে ঘর সংসার করতে অনুরোধ করেন শাহীন। এরইমধ্যে গত ৮ জুলাই তিন সন্তানের জননী শাহীনের স্ত্রীকে স্থানীয় পলাশ হাওলাদারসহ তার সহযোগিরা পরকীয়ার দোহাই দিয়ে এনজিও কর্মী জাহিদের সাথে জোরপূর্বক বিয়ে দিয়েছেন। চোখের সামনে নিজের স্ত্রীকে জোরপূর্বক অন্য যুবকের সাথে বিয়ে দেওয়ার বিষয়টি সহ্য করতে না পেরে শাহীন গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন। বাকেরগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) মো. মোস্তফা আত্মহত্যার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, খবর পেয়ে শাহীনের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় মৃত শাহীনের ভাই একটি অপমৃত্যুর মামলা দায়ের করেছেন। উল্লেখিত অভিযোগের বিষয়ে তিনি বলেন, বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। আত্মহত্যার প্ররোচনার সাথে কেউ জড়িত থাকলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আরও পড়ুন -
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত