ঢাকা ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ | বেটা ভার্সন

জয়সুরিয়ার কাঁধে শ্রীলঙ্কার দায়িত্ব

জয়সুরিয়ার কাঁধে শ্রীলঙ্কার দায়িত্ব

বিশ্বকাপে ব্যর্থতার পরই গুঞ্জন উঠেছিল শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটে রদবদলের। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে গ্রুপপর্ব থেকেই বাদ পড়ে লঙ্কানরা। তখন থেকেই প্রধান কোচ ক্রিস সিলভারউডের বিকল্প খুঁজছিল শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড (এসএলসি)। সিলভারউডের পদত্যাগের পর এখনো পূর্ণাঙ্গ মেয়াদে কোচ নিয়োগ দেয়নি শ্রীলঙ্কা। আপাতত খণ্ডকালীন দায়িত্বে তারা বেছে নিল সাবেক অধিনায়ক সানাথ জয়সুরিয়াকে। শ্রীলঙ্কার গণমাধ্যম দ্য সানডে টাইমস এক প্রতিবেদনে এই খবর জানিয়েছে। গতকাল সোমবার আনুষ্ঠানিক বিবৃতিতে আসন্ন ইংল্যান্ড সফর পর্যন্ত জয়সুরিয়াকে অন্তর্বর্তীকালীন কোচ হিসেবে নিয়োগের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে এসএলসি। গত বছরের ডিসেম্বর থেকে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটে পরামর্শক হিসেবে কাজ করছেন ৫৫ বছর বয়সি জয়সুরিয়া। নতুন দায়িত্ব পাওয়ার পর অবিলম্বে জাতীয় দলের প্রধান কোচ হিসেবে কাজ শুরু করবেন তিনি।

এর আগে কখনও কোচ হিসেবে কাজ করেননি শ্রীলঙ্কার কিংবদন্তি ওপেনার। শ্রীলঙ্কা জাতীয় দলের প্রধান নির্বাচক হিসেবে দায়িত্ব পালনের অভিজ্ঞতা রয়েছে তার। এছাড়া পরামর্শক হিসেবেও কাছ থেকে জাতীয় দলের কার্যক্রম পর্যবেক্ষণ করেছেন তিনি। এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে গ্রুপ পর্ব থেকে শ্রীলঙ্কার বিদায়ের পর প্রধান কোচের দায়িত্ব ছেড়ে দেন সিলভারউড। তার জায়গাতেই কাজ করবেন জয়সুরিয়া। পূর্ণাঙ্গ মেয়াদে কোচ নিয়োগের ব্যাপারে কিছু জানায়নি এলএলসি। সিলভারউড দায়িত্ব ছাড়ার পর শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটের প্রধান নির্বাহী অ্যাশলে ডি সিলভা জানিয়েছিলেন, বোর্ড নতুন কোচের খোঁজে বিজ্ঞপ্তি দেবে। নতুন কোচ হিসেবে স্বদেশি কাউকে অগ্রাধিকার দেওয়া হবে তেমনটাই জানিয়েছিলেন তিনি। জয়সুরিয়ার নিয়োগ সম্পর্কে ডি সিলভা বলেন, ‘সনাথের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে যে অভিজ্ঞতা, একটি জাতীয় দলকে গাইড করার মতো যথেষ্ট। যতদিন আমরা স্থায়ী কাউকে না পাব, তিনি দায়িত্ব পালন করবেন।’

শ্রীলঙ্কার কিংবদন্তি অলরাউন্ডার জয়সুরিয়া যুক্তরাষ্ট্রে বিশ্বকাপের সময়ও এই দলটির সঙ্গে ছিলেন, ছিলেন ক্যারিবিয়ান দ্বীপপুঞ্জেও। তিনি ছিলেন পরামর্শকের ভূমিকায়। আইসিসির দুর্নীতি বিরোধী তদন্তে অসযোগিতার কারণে দুই বছর নিষিদ্ধ থাকার পর আনুষ্ঠানিকভাবে এটিই ছিল তার প্রথম দায়িত্ব। প্রায় ২২ বছরের খেলোয়াড়ি জীবনে ১১০ টেস্ট, ৪৪৫ ওয়ানডে ও ৩১ টি-টোয়েন্টি খেলেন জয়সুরিয়া। ওয়ানডে ক্রিকেটে ‘পিঞ্চ হিটিংয়ে’ শুরুর পাওয়ার প্লেতে দ্রুত রান তোলার কারণে বিশেষ পরিচিতি ছিল বাঁহাতি ওপেনারের। সব মিলিয়ে ৪২টি সেঞ্চুরিসহ ২১ হাজারের বেশি রান ও বাঁহাতি স্পিনে ৪৪০ উইকেট নেন তিনি।

আরও পড়ুন -
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত