ঢাকা ২৩ জুলাই ২০২৪, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১ | বেটা ভার্সন

দাপুটে জয়ে কোপার ফাইনালে আর্জেন্টিনা

দাপুটে জয়ে কোপার ফাইনালে আর্জেন্টিনা

কানাডার বিপক্ষে আর্জেন্টিনার জয়টা প্রত্যাশিতই ছিল। সেই প্রত্যাশা নিয়ে মাঠে খেলতে নেমে পারফরম্যান্সেও দেখা গেল আর্জেন্টিনার সেই চিরচেনা দাপুটে খেলা। কোপা আমেরিকায় কানাডার বিপক্ষে আর্জেন্টিনা ম্যাচ জিতেছে ২-০ গোলের ব্যবধানে।টানা দ্বিতীয়বার এবং শেষ আট কোপায় ৬ষ্ঠবার ফাইনালে পৌঁঁছে গেল আর্জেন্টিনা।

আর্জেন্টিনার বিপক্ষে এদিন সেমিফাইনাল খেলতে নামা কানাডা পুরো ৯০ মিনিট খেলে কেবল দুইটি শট টার্গেটে রাখতে সক্ষম হয়েছে। কানাডার রক্ষণভাগের ফুটবলারদের ব্যস্ত সময় পার করতে হয় মেসি-আলভারেজদের সামাল দিতেই।

নিউ জার্সির মেটলাইফ স্টেডিয়ামে তৃতীয় মিনিটে ম্যাচের প্রথম কর্নার আদায় করে নেয় কানাডা। কাইল লারিনের কাছ থেকে বল পেয়ে বাঁ-প্রান্ত দিয়ে বক্সে ঢুকে জ্যাকব শাফেলবার্গ যে শটটি নেন, তা চলে যায় পোস্টের উপর দিয়ে। পরে ম্যাচের ১২তম মিনিটে প্রতিপক্ষের পোস্টে প্রথম শট নেয় আর্জেন্টিনা। প্রায় মাঝমাঠ থেকে বল নিয়ে কানাডা বক্সের কাছে এসে লিওনেল মেসিকে পাস দেন ডি মারিয়া। তবে মেসির শট অল্পের জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়।

ম্যাচের ২৩ মিনিটে এসে কাঙ্ক্ষিত লিড পায় আর্জেন্টিনা। মাঝমাঠ থেকে অনেকটা ফাঁকায় আলভারেজের দিকে বল বাড়ান ডি পল। বল পেয়ে এক ডিফেন্ডারকে পাশ কাটিয়ে জালের দেখা পান আর্জেন্টাইন নম্বর নাইন। প্রথমার্ধে গোল করার দারুণ সুযোগ পেয়েছিলেন লিওনেল মেসিও। তবে তার শট গোলবারের বাইরে চলে যাওয়ায় স্কোরশিটে নাম তোলা হয়নি বিশ্বকাপজয়ী এই ফুটবলারের। প্রথমার্ধের একেবারে শেষ মুহূর্তে কানাডার জোনাথন ডেভিডের শট কর্নারের বিনিময়ে রক্ষা করেন এমিলিয়ানো মার্তিনেজ।

ম্যাচের ৫১ মিনিটে নিজের কাঙ্ক্ষিত গোল পেয়ে যান লিওনেল মেসি। জটলার মাঝে এনজো ফার্নান্দেজের শটে পা ছুঁইয়ে বলের দিক পরিবর্তন করেন লা পুলগা। বল জড়ায় জালে। অফসাইডের অভিযোগ ছিল। তবে কানাডার রক্ষণের এক খেলোয়াড় ডিফেন্স লাইনের অনেকটাই নিচে ছিলেন। ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারি বাতিল করেন অফসাইডের আবেদন। এই গোলের সুবাদে বেশকিছু রেকর্ডও নিজের করেছেন মেসি।

আবা/এসআর/২৪

জয়,ফাইনাল,আর্জেন্টিনা
আরও পড়ুন -
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত