আজকের পত্রিকাআপনি দেখছেন ২৪-০৯-২০১৮ তারিখে পত্রিকা

শিল্প খাতে বিনিয়োগে গতিশীলতা আসছে না

ব্যাংক ঋণের এক অঙ্কের সুদহার বাস্তবায়ন করুন

| সম্পাদকীয়

সুলভ বিনিয়োগ পরিবেশ নিশ্চিতে দীর্ঘদিন ধরেই ঋণের সুদহার এক অঙ্কে নামিয়ে আনার দাবি জানিয়ে আসছেন দেশের ব্যবসায়ী ও শিল্পোদ্যোক্তারা। এর পরিপ্রেক্ষিতে চলতি অর্থবছরের বাজেট ঘোষণার আগেই সরকারের উচ্চপর্যায় থেকে ঋণের সুদহার এক অঙ্কে নামিয়ে আনার উদ্যোগ নেওয়া হয়। ১৪ মে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ব্যাংক ঋণের সুদহার সিঙ্গেল ডিজিটে নামিয়ে আনার নির্দেশ দেন। অথচ দেখা যাচ্ছে, আগস্ট মাস শেষ হলেও ঋণের সুদহার হ্রাসের সরকারি নির্দেশনা বাস্তবায়ন করেনি অনেক ব্যাংক। 
আলোকিত বাংলাদেশে প্রকাশ, বাংলাদেশ ব্যাংকের সর্বশেষ হালনাগাদ প্রতিবেদন অনুযায়ী আগস্ট মাসে বড় ও মাঝারি খাতে মেয়াদি ঋণ বিতরণে সর্বোচ্চ ১৮ শতাংশ সুদারোপ করেছে ফারমার্স ব্যাংক। এছাড়া ইউসিবি ১৭ শতাংশ, আইসিবি ইসলামিক সাড়ে ১৬ শতাংশ, এনআরবি কমার্শিয়াল ও দ্য সিটি ব্যাংক সাড়ে ১৪ শতাংশ, পূবালী, মিডল্যান্ড, মধুমতি ও সাউথ বাংলা এগ্রিকালচার অ্যান্ড কমার্স ১৪ শতাংশ, ওয়ান ব্যাংক ১৩ শতাংশ, ব্যাংক এশিয়া, ইস্টার্ন, ডাচ্-বাংলা, ব্র্যাক, যমুনা, ট্রাস্ট, সাউথইস্ট, প্রিমিয়ার, উত্তরা ও প্রাইম ব্যাংক ১২ শতাংশ এবং মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক সাড়ে ১০ শতাংশ সুদে ঋণ বিতরণ করেছে। বড় ও মাঝারি খাতে আগস্টে বিদেশি খাতের সিটি ব্যাংক এনএ, ব্যাংক আল ফালাহ, কমার্শিয়াল ব্যাংক অব সিলন, হাবিব ব্যাংক, এইচএসবিসি, ন্যাশনাল ব্যাংক অব পাকিস্তান ও স্টেট ব্যাংক অব ইন্ডিয়ার সর্বোচ্চ সুদহার দুই অঙ্কের ঘরেই ছিল। আগস্টে ছোট শিল্পে মেয়াদি ঋণ বিতরণেও দুই অঙ্কের বেশি সুদ নিয়েছে প্রায় তিন ডজন ব্যাংক। এছাড়া শিল্পের চলতি মূলধন খাত, ট্রেড ফাইন্যান্স, হাউজিং, কনজ্যুমার ও ক্রেডিট কার্ড খাতেও অনেক ব্যাংকের ঋণের সর্বোচ্চ সুদহার ২ অঙ্কের ঘরে রয়েছে।
দেশে বিনিয়োগ বৃদ্ধির স্বার্থেই ঋণের সুদহার এক অঙ্কে নামিয়ে আনা জরুরি, অধিক সুদহারের কারণে ব্যবসায়ী ও উদ্যোক্তারা বিপাকে রয়েছেন। তারা নতুন শিল্প স্থাপন ও বিদ্যমান শিল্প প্রসারে আগ্রহী হচ্ছেন না। শিল্পের বিকাশ ও কর্মসংস্থান বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতে খতিয়ে দেখা দরকার ঋণের সুদহার কমানোর সরকারি নির্দেশ কেন অমান্য করছে ব্যাংকগুলো? কেনই বা সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এ ব্যাপারে এখনও নিশ্চুপ। দেশের অর্থনৈতিক বিকাশের স্বার্থে বিভিন্ন শিল্প খাতে বিনিয়োগে গতিশীলতা আনতে অচিরেই সব ব্যাংক ঋণের সুদহার এক অঙ্কে নামিয়ে আনার নির্দেশনা অবিলম্বে কার্যকর করুক।