আজকের পত্রিকাআপনি দেখছেন ২২-০২-২০১৯ তারিখে পত্রিকা

শেয়ার মূল্য কারসাজি

পপুলার লাইফের ডিএমডি ও স্ত্রীকে জরিমানা

নিজস্ব প্রতিবেদক
| অর্থ-বাণিজ্য

পুঁজিবাজারে শেয়ারের মূল্য কারসাজি করে ধরা খেয়েছেন তালিকাভুক্ত কোম্পানি পপুলার লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানির এক সিনিয়র ডিএমডি ও তার স্ত্রী। সিরামিক খাতের কোম্পানি মুন্নু সিরামিকের শেয়ার নিয়ে তারা কারসাজি করেছিলেন। এ অপরাধে ডিএমডি মোস্তফা হেলাল কবির এবং তার স্ত্রী ফউজিয়া ইয়াসমিনকে ১০ লাখ টাকা করে মোট ২০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) কমিশন বৈঠকে এ জরিমানা করা হয়েছে। একই বৈঠকে পপুলার লাইফ ইন্স্যুরেন্সের শেয়ারের মূল্য কারসাজির দায়ে বিনিয়োগকারী কাজী মো. শাহাদাত হোসেনকে ৫০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। বিএসইসি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
জানা গেছে, মুন্নু সিরামিকসের শেয়ারের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধির জন্য মোস্তফা হেলাল কবির অ্যান্ড অ্যাসোসেয়েটসের মোস্তফা হেলাল কবির, ফউজিয়া ইয়াসমিন হাফেজা খাতুন, মবিউর রহমান সরকার, মেসার্স অহনা কনস্ট্রাকশন কারসাজি করে। এর মধ্যে মোস্তফা ও ফউজিয়া ইয়াসমিন সম্পর্কে স্বামী-স্ত্রী। মোস্তফা হেলাল কবির আবার পপুলার লাইফ ইন্স্যুরেন্সের সিনিয়র উপব্যবস্থাপনা পরিচালক ও কোম্পানি সচিব। বিএসইসির গঠিত একটি তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন ও শুনানিতে দেওয়া আলোচিত ব্যক্তিদের বক্তব্য পর্যালোচনা করে আজ কমিশন জরিমানার ওই সিদ্ধান্ত নেয়। তদন্ত প্রতিবেদন অনুসারে, মোস্তফা হেলাল ফউজিয়া ইয়াসমিন নিষিদ্ধ সময়কালে মুন্নু সিরামিকসের শেয়ার লেনদেন করে সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ অডির্ন্যান্স-১৯৬৯ এর ১৭(ব)(া) নম্বর ধারা এবং সিকিউরিটিজ ও এক্সচেঞ্জ কমিশন (সুবিধাভোগী ব্যবসা নিষিদ্ধকরণ) বিধিমালা-১৯৯৫ এর বিধি ৪ এর উপবিধি (২) লঙ্ঘন করেছে।
একইভাবে কাজী মো. শাহাদাত হোসেন সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ অডির্ন্যান্স-১৯৬৯ এর সেকশন ১৭(ব)(া) ভেঙেছে। পপুলার লাইফ ইন্স্যুরেন্সের সিনিয়র এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর ইমাদ উদ্দিন আহমেদ প্রিন্স নিষেধাজ্ঞা থাকাকালীন মুন্নু সিরামিকের শেয়ার লেনদেনের মাধ্যমে সিকিউরিটিজ ও এক্সচেঞ্জ কমিশন (সুবিধাভোগী ব্যবসা নিষিদ্ধকরণ) বিধিমালা-১৯৯৫ এর বিধি ৪ এর উপবিধি (২) ভঙ্গ করেছে; কোম্পানিটির সহকারী মহাব্যবস্থাপক তাইজুদ্দিন আহমেদ নিষেধাজ্ঞা থাকাকালীন মুন্নু সিরামিকের শেয়ার লেনদেনের মাধ্যমে সিকিউরিটিজ ও এক্সচেঞ্জ কমিশন (সুবিধাভোগী ব্যবসা নিষিদ্ধকরণ) বিধিমালা-১৯৯৫ এর বিধি ৪ এর উপবিধি (২) ভঙ্গ করেছে এবং কোম্পানিটির সিনিয়র এক্সিকিউটিভ অফিসার সৈয়দ মো. আকবর নিষেধাজ্ঞা থাকাকালীন মুন্নু সিরামিকের শেয়ার লেনদেনের মাধ্যমে সিকিউরিটিজ ও এক্সচেঞ্জ কমিশন (সুবিধাভোগী ব্যবসা নিষিদ্ধকরণ) বিধিমালা-১৯৯৫ এর বিধি ৪ এর উপবিধি (২) ভঙ্গ করেছে। আইন বহির্ভূত লেনদেন তথা কারসাজির অপরাধে কমিশন মোস্তফা হেলাল কবিরকে ১০ লাখ টাকা, তার স্ত্রী ফউজিয়া ইয়াসমিনকে ১০ লাখ টাকা ও কাজী শাহাদাত হোসেনকে ৫০ লাখ টাকা জরিমানা করে। এছাড়া হাফেজা খাতুন, মবিউর রহমান সরকার, মেসার্স অহনা কনস্ট্রাকশন, ইমাদ উদ্দিন আহমেদ, তাইজুদ্দিন আহমেদ ও সৈয়দ মো. আকবরকে সতর্কপত্র ইস্যু করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।